বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Illegal Lending Apps: ‘অবৈধ ঋণ প্রদানকারী অ্যাপের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হোক’, গুগলকে বলল কেন্দ্র
অবৈধ ঋণ প্রদানকারী অ্যাপের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করতে বলা হল গুগলকে (ছবি - মিন্ট) (MINT_PRINT)

Illegal Lending Apps: ‘অবৈধ ঋণ প্রদানকারী অ্যাপের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ করা হোক’, গুগলকে বলল কেন্দ্র

  • গত কয়েক মাসে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং কেন্দ্র বেশ কয়েকবার তলব করেছে গুগলকে। অবৈধ ঋণ প্রদানকারী অ্যাপগুলিকে যাতে বন্ধ করা হয়, তার জন্য কঠোর পদক্ষেপ করতে বলা হয়েছে গুগলকে।

ভারতে অবৈধ ডিজিটাল ঋণ প্রদানকারী অ্যাপ্লিকেশনগুলির ব্যবহার রোধে গুগলকে আরও কড়া হতে বলল কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদী সরকার এবং ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। রয়টার্সের একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, মার্কিন প্রযুক্তি সংস্থাকে গত কয়েক মাসে রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া এবং কেন্দ্র বেশ কয়েকবার তলব করেছে এই বিষয়ে। অবৈধ ঋণ প্রদানকারী অ্যাপগুলিকে যাতে বন্ধ করা হয়, তার জন্য কঠোর পদক্ষেপ করতে বলা হয়েছে গুগলকে। (আরও পড়ুন: ইস্পাত, লোহার রফতানি শুল্ক কমানোর চিন্তা ভাবনা শুরু করল কেন্দ্র)

কোভিড অতিমারির সময়ে এই বেআইনি ঋণ প্রদানকারী অ্যাপের বাড়বাড়ন্ত দেখা যায় দেশ জুড়ে। রয়টার্স রিপোর্টে বলা হয়েছে, এই ধরনের অ্যাপের বিস্তার নিয়ন্ত্রণ করতে চাইছে সরকার। এই অ্যাপগুলি অতিরিক্ত সুদের হার এবং ফি চার্জ করে থাকে। তাছাড়া আরবিআই দ্বারা অনুমোদিত উপায়ে টাকা আদায় করে না এই অ্যাপগুলি। পাশাপাশি অর্থ পাচার বা অন্যান্য সরকারি নিয়ম লঙ্ঘন করার সঙ্গেও জড়িত বেশ কয়েকটি অ্যাপ।

এদিকে সার্চ ইঞ্জিন জায়ান্ট গুগল বলেছে যে আর্থিক পরিষেবার অ্যাপগুলির জন্য তারা প্লে স্টোরের প্রোগ্রামিং নীতি সংশোধন করেছে। ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর থেকে ভারতে ব্যক্তিগত ঋণ প্রদানকারী অ্যাপগুলির জন্য অতিরিক্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। গুগলের একজন মুখপাত্র রয়টার্সকে জানিয়েছেন যে কোম্পানিটি প্লে স্টোর থেকে ভারতের দুই হাজারেরও বেশি ব্যক্তিগত ঋণ প্রদানকারী অ্যাপ সরিয়ে দিয়েছে। প্লে স্টোর নীতি লঙ্ঘনের জেরেই এই পদক্ষেপ করা হয়েছে এই অ্যাপগুলির বিরুদ্ধে। গুগল আশ্বস্ত করেছে যে এই সমস্যা সমাধানে সহায়তা জারি রাখবে তারা। এর জন্য আইন প্রয়োগকারী সংস্থা এবং শিল্প সংস্থাগুলির সঙ্গে আলোচনাও করতে থাকবে তারা।

বন্ধ করুন