বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Dead bodies left in Australia: সুটকেস বন্দি বহু পচনশীল মৃতদেহ ফেলে রেখে দেওয়া হল একসঙ্গে! এমন কাণ্ডের উদ্দেশ্য কী
মৃতদেহের প্রতীকী ছবি।

Dead bodies left in Australia: সুটকেস বন্দি বহু পচনশীল মৃতদেহ ফেলে রেখে দেওয়া হল একসঙ্গে! এমন কাণ্ডের উদ্দেশ্য কী

  • এমন অবাক কাণ্ডের উদ্দেশ্য হল অপরাধীকে পাকড়াও করা। তাই মৃতদেহের উপর পারিপার্শ্বিক তাপমাত্রা থেকে শুরু করে আবহাওয়ার বিভিন্ন উপাদানের প্রভাব কী হচ্ছে, তা পরীক্ষা করে দেখার জন্যই এমন পদক্ষেপ গৃহিত হয়। 

কোনওটা ডাস্টবিনে রেখে আবার কোনওটাকে সুটকেস বন্দি করে রাস্তায় ফেলে রেখে দেওয়া হল। এভাবে পর পর ৭০ টি মৃতদেহ ফেলে রাখা হয় রাস্তার উপর। ঘটনাটি পশ্চিম অস্ট্রেলিয়ার বুশল্যান্ডের। শুনে অবাক লাগলেও, এটি একটি গবেষণার অংশ। ফরেন্সিক গবেষণার অংশ এটি।

উল্লেখ্য, এমন অবাক কাণ্ডের উদ্দেশ্য হল অপরাধীকে পাকড়াও করা। তাই মৃতদেহের উপর পারিপার্শ্বিক তাপমাত্রা থেকে শুরু করে আবহাওয়ার বিভিন্ন উপাদানের প্রভাব কী হচ্ছে, তা পরীক্ষা করে দেখার জন্যই এমন পদক্ষেপ গৃহিত হয়। ভাবছেন, তা হলে ৭০ টি মৃতদেহ কোথা থেকে মিলল? এগুলি আসলে শূকরের মৃতদেহ। তা নিয়েই চলেছে পরীক্ষা। পরিবেশে বিভিন্ন উপাদানের সংস্পর্শে দেহগুলি কীভাবে পচছে, বা তার প্রভাব কী হতে পারে, তা নিয়ে চলছে গবেষণা। এই পুরো বিষয়টি নিখুঁতভাবে অধ্যায়ন করা হচ্ছে। মারডক ইউনিভার্সিটির ফরেন্সিক সায়ান্সের অধ্যাপক পাওলি ম্যাগনি বলছেন, কোনও মৃতদেহ রয়েছে সুটকেসে, কোনওটা চাকা লাগানো ডাস্টবিনে, কোনওটা আবার গাড়ির ডিকি, ওয়াড্রোব আলিমারিতে রাখা রয়েছে। তিনি বলছেন, তদন্তকারীদের সামনে এক্ষেত্রে দুটি চ্যালেঞ্জ। প্রথমটি অপরাধের মূল স্থল। আর অন্যটি অপরাধের স্থল থেকে দূরে যেখানে মৃতদেহ স্থানান্তরিত করা হয় সেই জায়গা। 'হিন্দিয়া নয়,ইন্ডিয়া', ভাষা বিতর্ক ইস্যুতে অমিত শাহকে তোপ এমকে স্ট্যালিনের

প্রসঙ্গত, মূল অপরাধস্থল ও দ্বিতীয় অপরাধস্থলের মাঝে যে বিস্তর ফারাক রয়েছে এলাকা ও পরিবেশগত দিকের, সেই জায়গা থেকে এই বিষয়ে বিস্তারিত তথ্য উঠে আসতে পারে। আর তা নির্দিষ্ট করে ধরে ফেলাই হল গবেষকদের কাছে বড় চ্যালেঞ্জ। এছাড়াও পচনশীল দেহে জমে থাকা পোকামাকড়ও বলে দেয় বহু তথ্য। এই গবেষণা থেকে যেকোনও অপরাধের পুনর্নির্মাণে সুবিধা পাওয়া যাবে বলে আশা।

বন্ধ করুন