বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Ind Vs Pak Advisory to Kashmiri Students: অশান্তির আশঙ্কা? ভারত-পাক ম্যাচের আগে পড়ুয়াদের ‘পরামর্শ’ কাশ্মীরি সংগঠনের

Ind Vs Pak Advisory to Kashmiri Students: অশান্তির আশঙ্কা? ভারত-পাক ম্যাচের আগে পড়ুয়াদের ‘পরামর্শ’ কাশ্মীরি সংগঠনের

এশিয়া কাপে ভারত-পাক মহারণের আগে বাড়ছে উত্তাপ

জম্মু ও কাশ্মীর ছাত্র সংগঠনের মুখপাত্র নাসিম খুয়েহামি একটি বার্তায় সকল কাশ্মীরি ছাত্রের কাছে আবেদন করেন যাতে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের সময় সংযত থাকেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনও পোস্ট না করেন। 

গত টি-২০ বিশ্বকাপে ভারত-পাক ম্যাচের পর বেশ কয়েকদিন উত্তপ্ত ছিল ভারতের বিভিন্ন অঞ্চল। পাকিস্তানের সমর্থনে গলা ফাটিয়ে বা সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট দিয়ে গ্রেফতার হয়েছিলেন অনেকে। ধৃত অনেকেই ছিলেন কাশ্মীরি। শুধু কাশ্মীর নয়, বাইরের রাজ্যে পড়াশোনা করতে আসা পড়ুয়ারাও ধৃতদের তালিকায় ছিলেন। এই আবহে এবার এশিয়া কাপে ভারত-পাক ম্যাচের পর যাতে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে এই কারণে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কাশ্মীরি পড়ুয়াদের উদ্দেশে ‘পরামর্শ’ দিল জম্মু ও কাশ্মীর ছাত্র সংগঠন।

জম্মু ও কাশ্মীর ছাত্র সংগঠনের মুখপাত্র নাসিম খুয়েহামি একটি বার্তায় সকল কাশ্মীরি ছাত্রের কাছে আবেদন করেন যাতে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনও পোস্ট না করা হয়। এই ম্যাচকে আর পাঁচটা ক্রিকেট ম্যাচের মতো করে দেখার আহ্বান জানান তিনি। যাতে কেউ কোনও বিপদে না পড়েন এর জন্য এই পরামর্শ দেন তিনি।

এর আগে গতবছর অক্টোবরে টি-২০ বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত-পাকিস্তান। এই প্রথম কোনও বিশ্বকাপের মঞ্চে পাকিস্তানের কাছে হারতে হয়েছিল ভারতকে। সেই ম্যাতের পর কাশ্মীরের মেডিক্যাল কলেজ থেকে শুরু করে আগ্রা, বিভিন্ন জায়গায় পাক ক্রিকেট দলের সমর্থনকারীদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু হয়েছিল। এই আবহে কাশ্মীরের ছাত্র সংগঠনের তরফে বলা হয়েছে, ‘আমরা সারা দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত কাশ্মীরি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলতে চাই - নিজের শিক্ষা এবং কর্মজীবনেকে অগ্রাধিকার দিন। এর জন্য অনুরোধ করছি যাতে তারা খেলাকে খেলার মতো করেই দেখেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা থেকে বিরত থাকেন। অপ্রয়োজনীয় কোনও তর্ক, বিতর্কে জড়াবেন না।’ এর আগে গতবছর আগ্রায় তিন কাশ্মীরি ছাত্র গ্রেফতার হয়েছিলেন। তাঁদের কথা উল্লেখ করে বলা হয়, ‘গতবছর আগ্রায় গ্রেফতার হওয়া তিন কাশ্মীরি ছাত্রের মধ্যে মাত্র একজনই নিজের পড়াশোনা চালিয়ে যাচ্ছেন। বাকি দুজন নিজের রাজ্যে ফিরে এসেছেন।’ সেই কথা মনে করিয়ে সবাইকে সংযত থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

 

বন্ধ করুন