বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ভারত–বাংলাদেশ বিমান পরিষেবা
শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ভারত–বাংলাদেশ বিমান পরিষেবা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ভারত–বাংলাদেশ বিমান পরিষেবা। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ভারত–বাংলাদেশ বিমান পরিষেবা

বাংলাদেশ যত সংখ্যক বিমান চালানোর প্রস্তাব দিয়েছিল, তার থেকে কম সংখ্যক বিমান দুই দেশের মধ্যে চলবে।

করোনা আবহে ফের শুরু হচ্ছে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বিমান পরিষেবা। আগামী ৩ সেপ্টেম্বরে এয়ার বাবল সিস্টেমের মাধ্যমে বিমান চলাচলের চিন্তাভাবনা করছে দুই দেশ।

প্রতি বছর ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে প্রচুর মানুষ যাতায়াত করেন। গত বছর মার্চ মাসে দেশজুড়ে লকডাউন শুরু হওয়ার পর দুই দেশের মধ্যে বিমান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এরপর গত বছর অক্টোবর মাসে এয়ার বাবল সিস্টেমের মাধ্যমে বিমান চলাচল শুরু হয়। গত এপ্রিল মাসে দেশ জুড়ে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ আছড়ে পড়ার পর ফের দুই দেশের মধ্যে বিমান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। তবে এবার ফের বিমান চলাচল শুরু হওয়ায় দুই দেশের মানুষের যাতায়াতে সুবিধা হবে বলেই মনে করা হচ্ছে। জানা গিয়েছে, বাংলাদেশ অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রকের তরফে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে দুই দেশের মধ্যে সপ্তাহে ২১টি করে বিমান চালানোর কথা বলা হয়। ঢাকা থেকে কলকাতা, দিল্লি ও চেন্নাইয়ের মধ্যে ৯টি বিমান চালানোর কথা বলা হয়েছে। পাশাপাশি চট্টগ্রাম থেকে কলকাতা, দিল্লি ও চেন্নাইয়ের মধ্যে ২টি বিমান চালানোর প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে।

ভারতের তরফে জানানো হয়েছে, পর্যটন ভিসা থাকলেও বাংলাদেশের নাগরিকরা ভারতে আসতে পারবেন। বাংলাদেশ থেকে আসা সব যাত্রীকে ভারতের বিমানবন্দরে অবতরণের পরই বাধ্যতামূলকভাবে করোনা পরীক্ষা করাতে হবে। স্পাইসজেট, ইন্ডিগোর মতো বিমান ভারত থেকে ঢাকা, চট্টগ্রামের মধ্যে নিয়মিত যাতায়াত করে। বাংলাদেশ থেকে প্রচুর মানুষ চিকিৎসার জন্য ভারতে আসেন। বাংলাদেশ যত সংখ্যক বিমান চালানোর প্রস্তাব দিয়েছিল, তার থেকে কম সংখ্যক বিমান দুই দেশের মধ্যে চলবে। এর আগে ২০ অগস্ট থেকে বিমান চালানোর প্রস্তাব দিয়েছিল বাংলাদেশ প্রশাসন।

বন্ধ করুন