বাড়ি > ঘরে বাইরে > রাজৌরিতে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন পাকিস্তানের, মৃত্যু সেনা জওয়ানের, জুনে শহিদ ৪
রাজৌরি-পুঞ্চে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন পাকিস্তানের  (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)
রাজৌরি-পুঞ্চে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন পাকিস্তানের  (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য পিটিআই)

রাজৌরিতে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন পাকিস্তানের, মৃত্যু সেনা জওয়ানের, জুনে শহিদ ৪

  • এছাড়াও আরও দুই জায়গায় যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান।

জম্মু ও কাশ্মীরের রাজৌরি জেলায় আবারও যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করল পাকিস্তান। ছুড়ল মর্টার। চালানো হল গুলি। তার জেরে মৃত্যু হয়েছে এক ভারতীয় সেনা জওয়ানের। তিনি নায়েব সুবেদার পদে কর্মরত ছিলেন। গত ৪ জুন থেকে এই নিয়ে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর চারজন জওয়ানের মৃত্যু হল।

এক প্রতিরক্ষা মুখপাত্র জানিয়েছেন, রাজৌরি জেলার নৌসেরা সেক্টের ভোর সাড়ে পাঁচটা নাগাদ গুলিবর্ষণ শুরু করে পাকিস্তান সেনা। তিনি বলেন, ‘নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর কৃষ্ণঘাটি সেক্টরে বিনা প্ররোচনায় ছোটো আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে গুলিবর্ষণ করে এবং মর্টার শেল ছুড়ে যুদ্ধবিরতি লঙ্ঘন করেছে পাকিস্তান। যোগ্য জবাব দিচ্ছে ভারতীয় সেনা।’ তার আগে পুঞ্চ জেলার কৃষ্ণঘাটি সেক্টরে রাত সাড়ে তিনটে যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে পাক সেনা। 

সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, একইসঙ্গে কাঠুয়া জেলার আন্তর্জাতিক সীমান্তে বরাবর হিরানগর সেক্টরে কারোল মাতরাই এলাকায় ভারতীয় সেনার ছাউনি এবং গ্রাম লক্ষ্য করে গুলি চালায় পাকিস্তানি রেঞ্জার্সরা। গতরাত একটা থেকে গোলাগুলি ছোড়া শুরু হয় বলে জানিয়েছেন এক আধিকারিক।

এদিকে, গত ৪ জুন রাজৌরি জেলার সুন্দরবনি সেক্টরে পাক সেনার গোলাগুলিতে হাবিলদার পি মাথিয়াজাগঙের মৃত্যু হয়েছিল। এক সপ্তাহ কাটতে না কাটতেই রাজৌরি এবং পুঞ্চ জেলার তারকুন্দি সেক্টরে একইভাবে প্রাণ হারান নায়েক গুরুচরণ সিং। ১৪ জুন পুঞ্চে লুনঙ্গাবুই অ্যাবোনমেই নামে এক জওয়ানের মৃত্যু হয়। 

উল্লেখ্য, চলতি বছর ১০ জুন পর্যন্ত ২,০২৭ বার যুদ্ধবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে জম্মু ও কাশ্মীরে গোলাগুলি চালিয়েছে পাক সেনা। গত বছরে সেই সংখ্যাটা ছিল ৩,১৬৮।

বন্ধ করুন