বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Galwan martyr's wife joins Indian Army: গালওয়ানে স্বামীকে হত্যা চিনের, সেনায় যোগ দিয়ে পূর্ব লাদাখে পোস্টিং পেলেন স্ত্রী

Galwan martyr's wife joins Indian Army: গালওয়ানে স্বামীকে হত্যা চিনের, সেনায় যোগ দিয়ে পূর্ব লাদাখে পোস্টিং পেলেন স্ত্রী

শহিদ নায়েক দীপক সিংয়ের স্ত্রী লেফটেন্যান্ট রেখা সিং। 

২০২০ সালের ১৫ জুন পূর্ব লাদাখ সেক্টরের গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় সেনা ও চিনা সেনার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছিল। সেই সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছিল ভারতীয় সেনার নায়েক (নার্সিং অ্যাসিসট্যান্ট) দীপক সিং-সহ ভারতীয় সেনার ২০ জওয়ানের। এবার সেনায় যোগ দিলেন তাঁর স্ত্রী। পোস্টিং হচ্ছে পূর্ব লাদাখেই।

পূর্ব লাদাখ সেক্টরে গালওয়ান সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছিল স্বামীর। সেই পূর্ব লাদাখ সেক্টরেই (ভারত-চিন সীমান্ত) পোস্টিং হতে চলেছে শহিদ নায়েক দীপক সিংয়ের স্ত্রী রেখার। নাম গোপন রাখার শর্তে বিষয়টির সঙ্গে অবহিত আধিকারিকরা জানিয়েছেন, চেন্নাইয়ের অফিসার্স ট্রেনিং অ্যাকাডেমি থেকে উত্তীর্ণ হয়ে রেখা গত সোমবার ভারতীয় সেনার লেফটেন্যান্ট হিসেবে নিযুক্ত হয়েছেন। ভারতীয় সেনার অর্ডন্যান্স কোরে তিনি কমিশনড হয়েছেন বলে ওই আধিকারিকরা জানিয়েছেন। 

নাম গোপন রাখার শর্তে এক আধিকারিক জানিয়েছেন, সোমবার পাঁচ লেডি ক্যাডেট-সহ প্রায় ২০০ জন চেন্নাইয়ের অফিসার্স ট্রেনিং অ্যাকাডেমি থেকে উত্তীর্ণ হয়েছেন। চিন সীমান্তে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ভারতীয় সেনার ইউনিটে পোস্টিং পেয়েছেন রেখা-সহ তিন লেডি ক্যাডেট। ভারতীয় সেনার অর্ডন্যান্স কোরে কমিশনড হয়েছেন রেখা।

ভারতীয় সেনার তরফে টুইটবার্তায় বলা হয়েছে, ‘চেন্নাইয়ের অফিসার্স ট্রেনিং অ্যাকাডেমিতে প্রশিক্ষণ শেষ করার পরে ভারতীয় সেনায় নিযুক্ত হয়েছেন শহিদ নায়েক (নার্সিং অ্যাসিসট্যান্ট) দীপক সিংয়ের স্ত্রী তথা লেডি ক্যাডেট রেখা সিং। গালওয়ান সংঘর্ষে শহিদ হয়েছিলেন নায়েক (নার্সিং অ্যাসিসট্যান্ট) দীপক সিং। যিনি মরণোত্তর বীরচক্রে ভূষিত হয়েছেন।’

উল্লেখ্য, ২০২০ সালের ১৫ জুন পূর্ব লাদাখ সেক্টরের গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় সেনা ও চিনা সেনার রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ হয়েছিল। সেই সংঘর্ষে মৃত্যু হয়েছিল ভারতীয় সেনার বিহার রেজিমেন্টের ১৬ ব্যাটেলিয়নের নায়েক (নার্সিং অ্যাসিসট্যান্ট) দীপক সিং-সহ ভারতীয় সেনার ২০ জওয়ানের। ২০২১ সালের প্রজাতন্ত্র দিবসে তাঁকে মরণোত্তর বীরচক্রে ভূষিত করা হয়েছিল। যা ভারতের তৃতীয় সর্বোচ্চ যুদ্ধকালীন সম্মান।

আরও পড়ুন: গালওয়ানে স্বামীর মৃত্যুর পর ছাড়েন শিক্ষকতা, এবার সেনার লেফটেন্যান্ট হলেন স্ত্রী

‘হিন্দুস্তান টাইমস’-র সাংবাদিক রাহুল সিং এবং ইন্ডিয়া টুডে'র সাংবাদিক শিব আরুরের লেখা ‘ইন্ডিয়াস মোস্ট ফিয়ারলেস ৩’ বই অনুযায়ী, গালওয়ানে প্রবল সংঘর্ষের মধ্যে নিজের সবকিছু উজাড় করে দিয়ে চিকিৎসা করেছিলেন শহিদ নায়েক দীপক। শুধু ভারতীয় নন, আহত চিনা জওয়ানদেরও চিকিৎসা করছিলেন। অথচ সেই দীপকের উপরই হামলা চালিয়েছে চিনারা। গালওয়ানে লড়াই করা এক ভারতীয় জওয়ানের মতে, নায়েক দীপক যে লড়াই করছিলেন না এবং চিকিৎসা করছিলেন, তা ভালোভাবেই জানত চিনা সেনা। তা সত্ত্বেও দীপককে প্রথমে আটকে রেখেছিল। নিজেদের ফৌজিদের চিকিৎসা করিয়েছিল। তারপর নায়েক দীপককে হত্যা করা হয়েছিল বলে জানান ওই ভারতীয় জওয়ান।

আরও পড়ুন: ভালো মুখে চিনকে কড়া জবাব! তেরঙা হাতে গালওয়ানে নববর্ষ উদযাপন ভারতীয় সেনার

স্বামী শহিদ হওয়ার পর নিজেকে সামলাতে কিছুটা সময় লেগেছিল রেখার। ২০২২ সালের মে'তে চেন্নাইয়ের অফিসার্স ট্রেনিং অ্যাকাডেমিতে যোগ দেন। ‘ইন্ডিয়াস মোস্ট ফিয়ারলেস ৩’ বই অনুযায়ী, রেখা বলেছিলেন যে ‘দীপক আমায় বলত যে ও আমায় নিয়ে গর্বিত। আমি শিক্ষিত এবং আমি শিক্ষক ছিলাম। পারিবারিক পরিস্থিতির কারণে ও নিজের স্কুলের পড়াশোনা শেষ করতে পারেনি।’

(এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup)

বন্ধ করুন