বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > জন আন্দোলনের মাধ্যমে করোনার মোকাবিলা, অনেকে বলেছিল ৭০-৮০ কোটি আক্রান্ত হবেন-মোদী
বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বিশেষ অনলাইন ডাভোস এজেন্ডা সামিটে যোগ দিয়ে কোভিড যুদ্ধে ভারতের অবদানের কথা তুলে ধরলেন মোদী।
বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বিশেষ অনলাইন ডাভোস এজেন্ডা সামিটে যোগ দিয়ে কোভিড যুদ্ধে ভারতের অবদানের কথা তুলে ধরলেন মোদী।

জন আন্দোলনের মাধ্যমে করোনার মোকাবিলা, অনেকে বলেছিল ৭০-৮০ কোটি আক্রান্ত হবেন-মোদী

  • প্রধানমন্ত্রী বলেন যে গত বছর ফেব্রুয়ারি-মার্চে অনেকে বলেছিল ৭০-৮০ কোটি মানুষের কোভিড হবে, ২০ লাখ মানুষ মারা যাবেন। কিন্তু ভারত দমে না গিয়ে কোভিডের মোকাবিলা করে।

বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরামের বিশেষ অনলাইন ডাভোস এজেন্ডা সামিটে যোগ দিয়ে কোভিড যুদ্ধে ভারতের অবদানের কথা তুলে ধরলেন মোদী। তিনি বললেন খুব শীঘ্রই ভারত আরও অনেক করোনা টিকা সারা বিশ্বের হাতে তুলে দেবে। ইতিমধ্যেই মেড ইন ইন্ডিয়া দুটি টিকা বিশ্বের নানান প্রান্তে পাঠিয়েছে। করোনা যুদ্ধে ভারত যে তার দায়িত্ব পূরণ করছে সেই কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। অর্থনীতিতে পরিস্থিতির দ্রুত বদল হবে বলে জানিয়ে মোদী ব্যবসায়ীদের ভারতের উন্নয়নের যাত্রায় শরিক হতে বলেন। 

প্রধানমন্ত্রী বলেন যে গত বছর ফেব্রুয়ারি-মার্চে অনেকে বলেছিল ৭০-৮০ কোটি মানুষের কোভিড হবে, ২০ লাখ মানুষ মারা যাবেন। কিন্তু ভারত দমে না গিয়ে কোভিডের মোকাবিলা করে। তিনি বলেন যে এদিন তিনি এসেছেন বিশ্বাস, আশা ও ইতিবাচক বার্তা নিয়ে ১৩০ কোটি ভারতবাসীর তরফ থেকে। মোদী বলেন যে করোনার বিরুদ্ধে লড়াইকে জনতার আন্দোলন করে সফলতা এসেছে। মোদী বলেন কোভিডের জন্য স্বাস্থ্য পরিকাঠামো তৈরি করা হয়েছে, প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে ও প্রযুক্তির সাহায্য নেওয়া হয়েছে টেস্টিংয়ের ক্ষেত্রে। ১২ দিনই ২৩ লাখ মানুষকে করোনা টিকা দেওয়া হয়েছে ও কয়েক মাসে ৩০ কোটি মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়া হবে বলে তিনি জানান। 

১৫০টি দেশকে ওষুধ ও বেশ কিছু দেশকে করোনা টিকা পাঠানো হয়েছে বলেও জানান মোদী। মোদী বলেন যে কোভিড এটা বুঝিয়ে দিয়েছে মনুষ্যত্ব খুব গুরুত্বপূর্ণ ও শিল্প মানুষের জন্য, রোবোটের জন্য নয়। টেকনোলজি যাতে মানুষের হিতে ব্যবহার করা হয় তার ওপর জোর দেন তিনি। একই সঙ্গে মোদী বলেন যে ভারতে বিভিন্ন সংস্কার করা হচ্ছে। অনেক সেক্টরকে স্টিমুলাস দেওয়া হচ্ছে যেখানে সংস্কার করা হচ্ছে। কীভাবে ৭৬ কোটি মানুষের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে সরাসরি ১.৮ লাখ কোটি টাকা  লকডাউনে পৌঁছে দেওয়া হয়েছে, সেই কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। সমস্ত ভারতীয়কে হেলথ আইডি কার্ড দেওয়ার নয়া পরিকল্পনার কথাও উল্লেখ করেন তিনি। আধার, ইউপিআই ও তথ্য গোপনীয়তা আইন নিয়েও বার্তা দেন প্রধানমন্ত্রী। পরিকাঠামো তৈরি করার ক্ষেত্রে সরকার ও শিল্পমহলকে একযোগে কাজ করতে হবে বলে জানান মোদী। তিনি বলেন যে বিভিন্ন আইনকে বদল করা হচ্ছে যাতে অযথা হেনস্থা না হয় ব্যবসায়ীদের। ক্রমশ ভারত আত্মনির্ভর হয়ে উঠছে বলে তিনি জানান। 

বন্ধ করুন