বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > নিয়ন্ত্রণরেখায় রাষ্ট্রপুঞ্জের গাড়িতে হামলার দায় চাপানোর পাক চেষ্টা ওড়াল দিল্লি
নিয়ন্ত্রণরেখা রাষ্ট্রপুঞ্জের এই এসইউভি-র উপরেই আক্রমণ চালানো হয়।
নিয়ন্ত্রণরেখা রাষ্ট্রপুঞ্জের এই এসইউভি-র উপরেই আক্রমণ চালানো হয়।

নিয়ন্ত্রণরেখায় রাষ্ট্রপুঞ্জের গাড়িতে হামলার দায় চাপানোর পাক চেষ্টা ওড়াল দিল্লি

  • ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক জানিয়েছে, রাষ্ট্রপুঞ্জের কর্মীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়ে ভুয়ো অভিযোগ করার চেষ্টা ইসলামাবাদের বৈশিষ্ট।

নিয়ন্ত্রণরেখা অঞ্চলে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত রাষ্ট্রপুঞ্জের গাড়ি ধ্বংস করেছে ভারতীয় বাহিনী। রবিবার পাকিস্তানের এই অভিযোগ মিথ্যা বলে জানিয়েছে দিল্লি। সেই সঙ্গে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রপুঞ্জের কর্মীদের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হয়ে ভুয়ো অভিযোগ করার চেষ্টা ইসলামাবাদের বৈশিষ্ট।

গত শুক্রবার পাকিস্তান অভিযোগ করে, নিয়ন্ত্রণরেখায় ভারত ও পাকিস্তানে রাষ্ট্রপুঞ্জের সামরিক পরিদর্শক দলকে নির্দিষ্ট নিশানা করে ভারতীয় সেনা। 

পাক সেনাবাহিনীর তরফে মেজর জেনারেল বাবর ইফতিকার টুইটারে রাষ্ট্রপুঞ্জের গাড়ির ভাঙা জানলার কাচ ও দোমড়ানো স্যাসির ছবি পোস্ট করে অভিযোগ করেন, নিয়ন্ত্রণরেখার চিরিকোট সেক্টরে বিনা প্ররোচনায় এসইউভিটি নিশানা করে আক্রমণ হানে ভারতীয় ফৌজ। 

এর জেরে রবিবার সন্ধ্যায় ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, ‘গত ১৮ ডিসেম্বর ২০২০ তারিখে রাষ্ট্রপুঞ্জের একটি গাড়িকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত ভারতীয় সেনাবাহিনী নিশানা করার পাকিস্তানি অভিযোগের সবিস্তারে তদন্ত করার পরে তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। আমাদের প্রথম সারির বাহিনী ওই অঞ্চলে রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধিদের সফর সম্পর্কে অবগত ছিল এবং কোনও রকম গুলিগোলা ছোড়া হয়নি।’

শ্রীবাস্তব বলেন, ‘নিজেদের নিন্ত্রণাধীন এলাকায় রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতিনিধিদের নিরাপত্তা দিতে নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে ভারতের বিরুদ্ধে লাগাতার মিথ্যা ও মনগড়া অভিযোগ না করে পাকিস্তানের উচিত কর্তব্যে গাফিলতির পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করা।’

এই ঘটনায় ভারতের তরফে তদন্ত রিপোর্ট ইতিমধ্যে পাকিস্তানকে পাঠানো হয়েছে বলেও এ দিন জানিয়েছেন মুখপাত্র। কিন্তু তার আগেই পাক বিদেশ মন্ত্রকের তরফে বিষয়টি রাষ্ট্রপুঞ্জের গোচরে এনে ঘটনার স্বচ্ছ অনুসন্ধানের আবেদন জানানো হবে বলা হয়েছে।

রাষ্ট্রপুঞ্জে পাকিস্তানের স্থায়ী প্রতিনিধি সংগঠনের সেক্রেটারি জেনারেলকে চিঠি লিখে অভিযোগ করেন যে, রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রতীক ও পতাকা থাকা সত্ত্বেও গাড়িটিকে জেনেবুঝে নিশানা করে ভারতীয় বাহিনী। তাঁর দাবি, নিয়ন্ত্রণরেখা সংলগ্ন এলাকায় রাষ্ট্রপুঞ্জের প্রযবেক্ষক দলের কাজে বাধা সৃষ্টি করতে ভারত অত্যাচারী ও বেপরোয়া পদক্ষেপের এ এক নতুন নিদর্শন। একই সঙ্গে ভারত পাকিস্তানের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান চালানোর চেষ্টা করছে বলেও নালিশ করেছেন রাষ্ট্রপুঞ্জে পাক প্রতিনিধি। 

চিঠিতে বলা হয়েছে, ভারতের তরফে কোনও রকম আগ্রাসী পদক্ষেপ করলে আত্মরক্ষার তাগিদে সমুচিত জবাব দিতে প্রস্তুত পাকিস্তান।

বন্ধ করুন