বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বিদেশি টিকা ভারতে আনার ক্ষেত্রে শর্তসাপেক্ষে অনুমোদন কেন্দ্রের
বিদেশি টিকা ভারতে আনার ক্ষেত্রে শর্তসাপেক্ষে অনুমোদন কেন্দ্রের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
বিদেশি টিকা ভারতে আনার ক্ষেত্রে শর্তসাপেক্ষে অনুমোদন কেন্দ্রের। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

বিদেশি টিকা ভারতে আনার ক্ষেত্রে শর্তসাপেক্ষে অনুমোদন কেন্দ্রের

বিদেশি কোনও ভ্যাকসিন সেটা যদি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ব্রিটেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপান সহ বেশ কয়েকটি দেশের অনুমোদন পেয়ে থাকে, তবে সেই ভ্যাকসিন ভারতে জরুরিভিত্তিতে ব্যবহার করা যেতে পারে।

দেশে ভ্যাকসিনের জোগান বাড়াতে এবার বিশেষ উদ্যোগ নিল কেন্দ্রীয় সরকার। বিদেশে তৈরি ভ্যাকসিন তা যদি অন্য দেশেও স্বীকৃতি পায়, তাও এবার ভারতে ব্যবহারের ছাড়পত্র দিল কেন্দ্র। সম্প্রতি স্পুটনিক-ভি ভ্যাকসিনকে জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্র। এবার অন্যান্য বিদেশি ভ্যাকসিন ব্যবহারের ছাড়পত্র দিল কেন্দ্রীয় সরকার।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ভ্যাকসিন সংক্রান্ত জাতীয় বিশেষজ্ঞ দলের তরফে জানানো হয়েছে, বিদেশি কোনও ভ্যাকসিন সেটা যদি বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা, ব্রিটেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপান-সহ নির্দিষ্ট কয়েকটি দেশের অনুমোদন পেয়ে থাকে, তবে সেই ভ্যাকসিন ভারতে জরুরিভিত্তিতে ব্যবহার করা যেতে পারে। একইসঙ্গে কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, এরকম ১০০টি বিদেশি ভ্যাকসিনকে সাত দিন ধরে প্রয়োগ করে প্রথমে দেখা হবে। তাতে ফল যদি আশানুরূপ হয়, তাহলে সেগুলিকে পরবর্তীক্ষেত্রে ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হবে।

এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, বিশেষজ্ঞদের এই সিদ্ধান্তের ফলে বেশি সংখ্যক ভ্যাকসিন দেশে নিয়ে আসা সম্ভব হবে এবং দেশের বেশি সংখ্যক মানুষের মধ্যে ভ্যাকসিন দেওয়ার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হবে। একইসঙ্গে ভ্যাকসিনের চাহিদাও মিটবে। কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছেন ভ্যাকসিন বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের মতে, এভাবে বিদেশি ভ্যাকসিনকে ছাড়পত্র দেওয়ার ফলে দেশে মানুষকে ভ্যাকসিন দেওয়ার কাজ আরও ত্বরান্বিত হবে।

সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন রাজ্যে প্রয়োজনের তুলনায় কম ভ্যাকসিন আছে বলে অভিযোগ উঠেছে। চাহিদার তুলনায় জোগান যথেষ্টই কম বলে দাবি। যদিও সেই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্র। এই পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে ওয়াকিবহাল মহলের মত। গত বছর মে মাসে ভ্যাকসিন উৎপাদন ও গবেষণার জন্য মুখ্য বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা কে বিজয় রাঘবনের নেতৃত্বে একটি টাস্ক ফোর্স গঠন করা হয়। একইসঙ্গে ভ্যাকসিন সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞদের দলও গঠন করা হয়।

বন্ধ করুন