ব্রেকিং নিউজ

India fights Covid-19: করোনা রুখতে রবিবার 'জনতা কার্ফিউ'-র আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

বৃৃহস্পতিবার দিল্লিতে বৈদ্যুতিন সামগ্রীর দোকানে প্রধানমন্ত্রীর জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ শুনছে আগ্রহী জনতা।  (PTI)
বৃৃহস্পতিবার দিল্লিতে বৈদ্যুতিন সামগ্রীর দোকানে প্রধানমন্ত্রীর জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ শুনছে আগ্রহী জনতা। (PTI)

  • রবিবার সকাল ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত কাউকে বাড়ি থেকে না বেরোতে অনুরোধ করলেন মোদী।

ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের মোকাবিলা করতে জাতির উদ্দেশে ভাষণে ‘জনতা কার্ফিউ’-এর তত্ত্ব বাস্তবায়িত করার আবেদন জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

Covid-19 সংক্রমণ এড়াতে বৃহস্পতিবার দেশবাসীর সহযোগিতা চেয়ে আবেদন জানালেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, বিশ্বের বহু দেশে ইতিমধ্যে ভয়ংকর রূপ নিয়েছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ। এই মহাসংকট থেকে রক্ষা পাওয়ার ওষুধ এখনও পর্যন্ত আবিষ্কার করতে পারেনি বিজ্ঞান। তাই এই সংকটে সংযম ও সতর্কতা জরুরি। এই মহামারী থেকে রক্ষা পাওয়ার এই হল সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উপায়।

তিনি বলেন, ‘আপনাদের কাছে আবেদন, এই পরিস্থিতি জনতা কার্ফু জারি করার পথে সহায়তা করুন।’

প্রধানমন্ত্রী ব্যাখ্যা করেন, ‘বর্তমান প্রজন্ম হয়তো এমন সংকটের অভিজ্ঞতা লাভ করেননি। আমি যখন ছোট ছিলাম, তখন যুদ্ধকালে দেশজুড়ে সতর্কতা জারি হত। নিরাপত্তার স্বার্থে কারফিউ জারি করা হত। বাড়ির জানলার কাচ কাগজে ঢেকে রাখা হত। চৌকিদাররা সতর্ক থাকতেন। এখন ঠিক সেই পরিস্থিতি উপস্থিত।’

জাতির উদ্দেশে নমোর আবেদন, ‘২২ মার্চ, রবিবার একান্ত প্রয়োজন না হলে সকাল ৭টা থেকে রাত ৯টার মধ্যে বাড়ির বাইরে বেরোবেন না। পারলে সব কাজ বাড়িতে বসেই করুন। যাঁরা সরকারি কর্মচারী, সংবাদমাধ্যম কর্মী, জনপ্রতিনিধি বা স্বাস্থ্য কর্মী, তাঁদের বাইরে বেরোতে হতে পারে। কিন্তু বাকিদের প্রতি আমার আর্জি, দয়া করে বাড়ির বাইরে বেরোবেন না। বিশেষ করে যাঁরা ৬০-৬৫ বছরের বেশি বয়স্ক, তাঁরা বাড়ির বাইরে দয়া করে বেরোবেন না।’

তিনি বলেন, ‘যে সংকট আজ দেশের সামনে এসেছে, তা দেশবাসী নিজের সংকট বলে বোধ করেছেন। আমার বিশ্বাস ভবিষ্যতেও আমরা সবাই একসঙ্গে কাঁধেকাঁধ মিলিয়ে এমন কঠিন সময়ের মোকাবিলা করতে সফল হব।’


বন্ধ করুন