বাড়ি > ঘরে বাইরে > নেপালকে ‘সদর্থক পরিবেশ’ তৈরি করে কূটনৈতিক পথে সীমান্ত সমস্যা সমাধানের বার্তা দিল্লির
‘সদর্থক আবহ তৈরির জন্য কূটনৈতিক আলোচনায়’ অংশগ্রহণ করতে কাঠমান্ডুকে আহ্বান জানাল ভারত।
‘সদর্থক আবহ তৈরির জন্য কূটনৈতিক আলোচনায়’ অংশগ্রহণ করতে কাঠমান্ডুকে আহ্বান জানাল ভারত।

নেপালকে ‘সদর্থক পরিবেশ’ তৈরি করে কূটনৈতিক পথে সীমান্ত সমস্যা সমাধানের বার্তা দিল্লির

  • সীমান্ত সংক্রান্ত সমস্ত বকেয়া বিষয় নিয়ে ভারত ও নেপালের মধ্যে আলোচনা হবে।

লিপুলেখ ও কালাপানি অঞ্চল নেপালের নতুন মানচিত্রে স্থান দেওয়া নিয়ে বিতর্কের পরে ‘সদর্থক আবহ তৈরির জন্য কূটনৈতিক আলোচনায়’ অংশগ্রহণ করতে কাঠমান্ডুকে আহ্বান জানাল ভারত।

নতুন মানচিত্রে ভারতের উত্তরাখণ্ড রাজ্যের লিপুলেখ ও কালাপানিকে নেপালের সুদূর পশ্চিম রাজ্যের অংশ বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। বুধবার ওই মানচিত্র প্রকাশ করার পরে বিদেশ মন্ত্রকের তরফে নেপালের পদক্ষেপের কড়া সমালোচনা করা হয়।

এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব বলেন, ‘সীমান্ত সংক্রান্ত সমস্ত বকেয়া বিষয় নিয়ে ভারত ও নেপালের মধ্যে আলোচনা হবে এবং আমরা আশা করছি নেপাল প্রশাসন কূনৈতিক বৈঠকের জন্য সদর্থক পরিবেশ তৈরি করবেন যাতে সীমান্ত সমস্যার যথার্থ সমাধান করা সম্ভব হয়।’

নেপালের নতুন মানচিত্র সম্পর্কে পূর্ব অবস্থানে অনড় রয়েছে ভারত, জানিয়েছেন শ্রীবাস্তব। সেই সঙ্গে আবার জানিয়েছেন যে, এলাকা সম্প্রসারণের এমন কৃত্রিম দাবি কোনও মতেই ভারত মেনে নেবে না।

৬ মাস আগে ভারত নতুন মানচিত্র প্রকাশ করলে তাতে লিপুলেখ ও কালাপানি অঞ্চল উত্তরাখণ্ড রাজ্যের অংশ বলে চিহ্নিত করা হয়। 

গত ৮ মে প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং উত্তরাখণ্ডের ধারচুলা থেরে চিন সীমান্তের কাছে লিপুলেখ পর্যন্ত ৮০ কিমি দীর্ঘ সড়ক উদ্বোধন করার পরে ভারতের বিরুদ্ধে অবৈধ ভাবে জমি দখলের অভিযোগ তোলে কাঠমান্ডু। গত সপ্তাহে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতকে তলব করে এই বিষয়ে প্রতিবাদ জানায় নেপাল সরকার।  

বন্ধ করুন