বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > করোনা সামলাতে ভূমিকা কেমন? আমেরিকা-ব্রিটেনের আগে চতুর্থ স্থানে মোদী সরকার
দিল্লিতে এক তরুণীর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)
দিল্লিতে এক তরুণীর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করা হচ্ছে (ছবি সৌজন্য রয়টার্স)

করোনা সামলাতে ভূমিকা কেমন? আমেরিকা-ব্রিটেনের আগে চতুর্থ স্থানে মোদী সরকার

  • আমেরিকা, ফ্রান্স, ইতালি, ব্রিটেনের মতো দেশকে টপকে চতুর্থ স্থানে আছে ভারত।

বিরোধীদের দাবি, করোনাভাইরাস সামলাতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে কেন্দ্র। তাই নজর ঘোরাতে অন্যান্য বিষয় তুলে ধরা হচ্ছে। যদিও একটি সমীক্ষা অনুযায়ী, করোনা মোকাবিলায় নরেন্দ্র মোদী সরকারের পদক্ষেপে মোটের উপর সন্তোষ প্রকাশ করেছেন দেশবাসী। শুধু তাই নয়, আমেরিকা, ফ্রান্স, ইতালি, ব্রিটেনের মতো দেশকে টপকে চতুর্থ স্থানে আছে ভারত।

গত জুনে বিশ্বের ১৯ টি দেশে প্রায় ১৩,৪০০ জন মানুষের উপর সেই সমীক্ষা চালানো হয়েছিল। সেই সমীক্ষার ফল সম্প্রতি ‘পাবলিক লাইব্রেরি অফ সায়েন্স’-এর বিজ্ঞানসংক্রান্ত জার্নাল প্লস-ওয়ানে প্রকাশিত হয়েছে। তাতে আর্থ-সামাজিক অবস্থা, পরিযায়ী অবস্থা, জাতি বা ভাষা নির্বিশেষে সরকার সবাইকে স্পষ্টভাবে করোনার বিষয়ে অবহিত করেছে কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল। করোনা মোকাবিলায় সরকারের উপযুক্ত বিশেষজ্ঞ দল আছে কিনা এবং স্বাস্থ্য পরিষেবা নিশ্চিতের জন্য পদক্ষেপ করা হয়েছিল কিনা, সেই সংক্রান্ত বিষয়ও জানতে চাওয়া হয়েছিল। একইসঙ্গে অন্যান্য দেশ এবং বিশ্ব সাস্থ্য সংস্থার (হু) মতো আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সরকারের সহযোগিতার বিষয়টি নিয়েও প্রশ্ন করা হয়েছিল। 

সেই সমীক্ষা অনুযায়ী, করোনা মোকাবিলায় সরকারের পদক্ষেপে সবথেকে সন্তুষ্ট চিন (৮০.৪৮)। দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানে আছে যথাক্রমে দক্ষিণ কোরিয়া (৭৪.৫৪) এবং দক্ষিণ আফ্রিকা (৬৪.৬২)। তারপরেই আছে ভারত। ১০০-র মধ্যে ভারত পেয়েছে ৬৩.৮৮।

অন্যদিকে, আমেরিকা পেয়েছে ৫০.৫৭। নির্বাচনের আগে যে তথ্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উদ্বেগ যে আরও বাড়াবে, তা নিয়ে কোনও দ্বিধা নেই। ব্রিটেন (৪৮.৬৬), রাশিয়া (৪৮.৮৫) এবং স্পেন (৪৪.৬৮) সরকারের পদক্ষেপে তেমন সন্তুষ্ট নয় সেদেশের মানুষ। সরকারের গাফিলতির জন্য করোনা ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে বলে অভিযোগ উঠলেও সমীক্ষায় ইতালি পেয়েছে ৫১.৭১। 

করোনা মহামারী মোকাবিলায় সরকারের পদক্ষেপ নিয়ে জনগণের প্রতিক্রিয়া জানার জন্য একটি সহজ ও নির্ভরযোগ্য উপায় বের করেছে একাধিক আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠানের সাহায্যপ্রাপ্ত বার্সেলোনা ইনস্টিটিউট ফর গ্লোবাল হেলথ। গবেষকদের মতে, এই সমীক্ষার ফলে করোনা মোকাবিলায় কোনও দেশের কোথায়, কী খামতি রয়ে গিয়েছে, তা সহজেই চিহ্নিত করা যাবে।

বন্ধ করুন