বাড়ি > ঘরে বাইরে > নিমেষে মিলল অনুমতি, করোনা চিকিত্সায় ভারতে ব্যবহার হবে রেমডিসিভির
রেমডিসিভির (REUTERS)
রেমডিসিভির (REUTERS)

নিমেষে মিলল অনুমতি, করোনা চিকিত্সায় ভারতে ব্যবহার হবে রেমডিসিভির

মার্কিন সংস্থা গিলিয়াড সায়েন্সের প্রস্তুত করা এই ওষুধ। 

সীমিত আপত্কালীন প্রয়োজনের জন্য অ্যান্টি-ভাইরাল ড্রাগ রেমডিসিভির ব্যবহার করার ছাড় দিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। মার্কিন সংস্থা গিলিয়াড সায়েন্সেসকে এই অনুমতি দেওয়া হয়েছে কোভিড চিকিত্সার জন্য। 

দেশে যে ভাবে কোভিড পরিস্থিতি সংকটজনক হয়ে উঠছে, তার জন্যেই জরুরি ভিত্তিতে এই ছাড়পত্র মার্কিন সংস্থাকে দেওয়া হয়েছে বলে সূত্রের খবর। যারা করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি, তাদের ক্ষেত্রে  সর্বোচ্চ পাঁচদিনের জন্য এই ওষুধ ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে বিভিন্ন সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে এই ওষুধ ব্যবগারের ক্ষেত্রে। 

ইনজেকশনের মাধ্যমে শরীরে প্রবেশ করে রেমডিসিভির। এটি এখন বাজারে বিক্রির ছাড়পত্র দিয়েছে স্বাস্থ্যমন্ত্রক। কিন্তু প্লেসক্রিপশন ছাড়া মিলবে না ওষুধ। তবে দশ দিন নয়, পাঁচ দিনের জন্য সর্বোচ্চ এই ড্রাগ ব্যবহার করা যেতে পারে। দশ দিন এই ড্রাগ ব্যবহার করলে বেশি উপকার হবে, ছাড়পত্র দেওয়ার সময় অবধি তেমন কোনও প্রমাণ মেলেনি। 

 New Drug and Clinical Trial Rules, 2019 অনুযায়ী জরুরি ভিত্তিতে এই ড্রাগ ব্যবহারের ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে। গিলিয়াড সায়েন্সেস ২৯ মে ভারতে রেমডিসিভির ব্যবহারের জন্য আবেদন করেছিল। কোভিডের জন্য ওষুধ হিসাবে ব্যবহারের জন্য চোখের পলকেই মিলল অনুমতি। তবে তার আগে বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে শলা-পরামর্শ করেছে Central Drugs Standard Control Organisation (CDSCO). তবে ডাক্তারের তত্ত্বাবধান ছাড়া এই ড্রাগ নেওয়া যাবে না। 

এর আগে আমেরিকায় কোভিডের জন্য রেমডিভিসিরকে ছাড়পত্র দিয়েছে United States Food and Drug Administration (FDA). দুই ভারতীয় সংস্থা সিপলা ও হেটেরো ল্যাবস ভারতে রেমডিসিভির বানিয়ে বিক্রি করতে চায়। তাদের অবশ্য এখনও ছাড়পত্র দেওয়া হয়নি।

ভারতে কোনও ড্রাগ ব্যবহারের আগে ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল করতে হয়। কিন্তু সময়ের অভাবে এখানে সেটি করা হয়নি। মহামারী বা জাতীয় বিপর্যয়ের ক্ষেত্রে আইনে সেই সুযোগ আছে। এখনও পর্যন্ত হওয়া রিসার্চে দেখা গেছে খুব অসুস্থ রোগীর ক্ষেত্রেও এই অসুধে লাভ মিলেছে। সেই কারণেই ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত হল রেমডিসিভির। 

 

বন্ধ করুন