বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার নিরিখে ভারত ১৪২তম স্থানে, 'ব্যাড' ক্যাটাগরিতে দেশ!
হামলার শিকার সংবাদমাধ্যমের গাড়ি (ফাইল)
হামলার শিকার সংবাদমাধ্যমের গাড়ি (ফাইল)

সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার নিরিখে ভারত ১৪২তম স্থানে, 'ব্যাড' ক্যাটাগরিতে দেশ!

  • তিন ধাপ নীচেই পাকিস্তান, ১৭৭ তম স্থানে চিন

ভারতের মতো গণতান্ত্রিক দেশে মত প্রকাশের স্বাধীনতা, সংবাদ মাধ্যমের স্বাধীনতা কতটা তানিয়ে তর্কের ঝড় ওঠে সেমিনারে, বিতর্ক সভায়। কিন্তু বাস্তবে সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার নিরিখে ঠিক কোন জায়গায় রয়েছে আমাদের দেশ? এ দেশে কেমন আছে গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভ?  এব্যাপারে নন প্রফিট প্রেস ফ্রিডম অর্গানাইজেশনের করা সাম্প্রতিকতম সমীক্ষার রিপোর্ট কার্যত শিউরে ওঠার মতোই। সেই রিপোর্ট অনুসারে পৃথিবীতে সাংবাদিকদের কাছে ভয়ঙ্করতম দেশগুলির মধ্যে ভারত অন্যতম। ওয়ার্ল্ড প্রেস ফ্রিডমের সূচক অনুসারে ভারতের স্থান এককথায় হতাশাজনক। ১৮০টি দেশের মধ্যে ভারতের স্থান ১৪২ তম স্থানে। মঙ্গলবার প্রকাশিত রিপোর্ট উল্লেখ করা হয়েছে পৃথিবীর যে সমস্ত দেশে কোভিড ১৯ মহামারীর নানা খবরকে একাধিক ক্ষেত্রে চেপে দেওয়া হয়েছে তার মধ্যে এই দেশও পড়ে।

এককথায় সংবাদমাধ্যমের স্বাধীনতার নিরিখে ভারতের স্থান কার্যত 'খারাপ' ক্যাটাগরিতে। ব্রাজিল, মেক্সিকো, রাশিয়ার সঙ্গে একই সারিতে রয়েছে ভারতের নাম। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলির মধ্যে প্রতিবেশী নেপাল আমাদের থেকে অনেকটা এগিয়ে  ১০৬তম স্থানে, শ্রীলঙ্কা রয়েছে ১২৭ তম স্থানে,  মায়ানমার ১৪০ তম স্থানে, পাকিস্তান ১৪৫ তম স্থানে, বাংলাদেশ ১৫২তম স্থানে রয়েছে। চিনের স্থান ১৭৭ তম স্থানে আর আমেরিকা ৪৪তম স্থানে।

রিপোর্ট উল্লেখ করা হয়েছে গত বছর এই দেশে খুন হতে হয়েছিল ৪জন সাংবাদিককে। যে সাংবাদিকরা তাঁদের কাজটা ঠিকঠাক করে করতে চান তাঁদের কাছে এই দেশ ভয়ঙ্কর। উল্লেখ করা হয়েছে রিপোর্টে। পুলিশের হয়রানি, হামলা, রাজনৈতিক লোকজনের হেনস্থা, দুষ্কৃতী হামলা, স্থানীয় স্তরের দুর্নীতিগ্রস্ত আধিকারিকদের কাছে অপদস্থ হওয়ার মতোও ঘটনাও ঘটে এই দেশের বিভিন্ন মিডিয়ার সাংবাদিকদের সঙ্গে। উল্লেখ করা হয়েছে রিপোর্টে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে আসলে গণতন্ত্র নিয়ে বড়াই করা এদেশের অনেকের কাছেই এই রিপোর্ট অস্বস্তিতে ফেলার জন্য যথেষ্ট। 

 

বন্ধ করুন