বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার পরিবর্তন বরদাস্ত নয়, ভারত-চিন বৈঠকের দিনে বার্তা জেনারেল রাওয়াতের
প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার পরিবর্তন বরদাস্ত নয়, ভারত-চিন বৈঠকের দিনে বার্তা সিডিএসের (ফাইল ছবি, পিটিআই)
প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার পরিবর্তন বরদাস্ত নয়, ভারত-চিন বৈঠকের দিনে বার্তা সিডিএসের (ফাইল ছবি, পিটিআই)

প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার পরিবর্তন বরদাস্ত নয়, ভারত-চিন বৈঠকের দিনে বার্তা জেনারেল রাওয়াতের

  • সীমান্তে উত্তেজনা প্রশমনে অষ্টম সামরিক পর্যায়ের বৈঠকে বসেছে ভারতীয় ও চিনা সেনা।

সীমান্তে উত্তেজনা প্রশমনে অষ্টম সামরিক পর্যায়ের বৈঠকে বসেছে ভারতীয় ও চিনা সেনা। তারইমধ্যে আবারও ভারতের অবস্থান স্পষ্ট করে দিলেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ (সিডিএস) জেনারেল বিপিন রাওয়াত। তিনি জানান, প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার কোনওরকম হেরফের বরদাস্ত করবে না ভারত।

‘ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজ’-এর হীরক জয়ন্তী অনুষ্ঠানে জেনারেল রাওয়াত বলেন, ‘সার্বিকভাবে নিরাপত্তার বিচারে সীমান্ত সংঘর্ষ, সীমান্ত লঙ্ঘন এবং কৌশলগতভাবে অপ্ররোচিত সামরিক পদক্ষেপ উপেক্ষা করা যাবে না। যা থেকে দ্বন্দ্বের মাত্রা বাড়বে।’

তার জেরে লাদাখ সেক্টরে যে এখনও যথেষ্ট উত্তেজনা আছে, তা স্পষ্টভাবে জানিয়েছেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ। তিনি জানান, ভারতীয় সামরিক বাহিনীর ‘দৃঢ় এবং শক্তিশালী' জবাবের জন্য নিজেদের কৃতকর্মের ফল ভুগছে। যা চিনের কাছে একেবারেই অপ্রত্যাশিত। একইসঙ্গে পাকিস্তান ও চিনের থেকে যে যৌথ বিপদের সম্ভাবনা আছে, তা নিয়েও সতর্ক করেছেন রাওয়াত। তিনি জানান, দুটি পরমাণু-শক্তিধর দেশের সঙ্গে ভারতের অবিরাম দ্বন্দ্ব আছে। যে দেশগুলির সঙ্গে ভারত ইতিমধ্যে যুদ্ধে লড়েছে। সেই দু'দেশ যেভাবে পদক্ষেপ করে, তাতে ‘সার্বিকভাবে আঞ্চলিক কৌশলগত অস্থিতির ঝুঁকি আছে। যা বৃদ্ধির পাওয়ার সম্ভাবনা আছে।’ 

এর আগে বৃহস্পতিবার প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাশ সিং জানিয়েছিলেন, একতরফা পদক্ষেপ এবং আগ্রাসনের মধ্যে নিজের সার্বভৌমত্ব এবং আঞ্চলিক অখণ্ডতা অক্ষু্ণ্ণ রাখতে বদ্ধপরিকর ভারত। সেজন্য যা কিছু করতে  হোক না কেন, তাতে করতে তৈরি ভারত। তিনি জানান, শুধুমাত্র যুদ্ধ রোখার ক্ষমতা দিয়ে শান্তি নিশ্চিত করা যাবে।

বন্ধ করুন