বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > India-China Clash: তাওয়াং সেক্টরে ভারত-চিন মুখোমুখি, প্রতিক্রিয়া জানাল জাতিসঙ্ঘ

India-China Clash: তাওয়াং সেক্টরে ভারত-চিন মুখোমুখি, প্রতিক্রিয়া জানাল জাতিসঙ্ঘ

অরুণাচলে ভারতীয় সেনা। ফাইল ছবি (PTI Photo) (PTI)

প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, গত ৯ ডিসেম্বর পিএলএ ফৌজ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পার হওয়ার চেষ্টা করছিল। এরপর ভারতের বাহিনী চিনের এই অপচেষ্টাকে বলিষ্ঠতার সঙ্গে চ্য়ালেঞ্জ করে। এরপর দুপক্ষের মধ্যে মুখোমুখি হয়ে যায়। পিএলএর ফৌজকে আটকে দেয় ভারতীয় সেনা। এরপর তাদের পোস্টে ফেরৎ যেতে বাধ্য করে।

মঞ্জিরী চিত্রে

৯ ডিসেম্বর অরুণাচল প্রদেশের তাওয়াং সেক্টরে চিন ও ভারতের সেনা মুখোমুখি হয়েছিল বলে খবর। এবার এনিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাল রাষ্ট্রসঙ্ঘ। রাষ্ট্রসঙ্ঘের মুখপাত্র UN Secretary General অ্যান্টোনিয়ো গুয়েতেরেস প্রেস ব্রিফিংয়ে জানিয়েছেন, আমরাও এটা নিশ্চিত করতে বলছি যে ওই এলাকায় টেনশন আর যেন না বাড়ে।

এদিকে সোমবার সেনার তরফে জানানো হয়েছিল গত ৯ ডিসেম্বর অরুণাচল প্রদেশের তাওয়াং সেক্টরে ভারতীয় সেনা ও চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মি পরস্পরের মধ্যে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েছিল। দুপক্ষেরই কয়েকজন জখম হয়েছেন এই ঘটনায়।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং মঙ্গলবার সংসদের দুই কক্ষেই এনিয়ে মুখ খোলেন। তিনি জানিয়ে দিয়েছেন, কোনও সেনার মৃত্য়ু হয়নি।কেউ বড় ধরনের জখম হননি। সেনাদের সাহসিকতার কথা তুলে ধরে তিনি জানিয়েছেন, সেনা এই ধরনের পরিস্থিতি সামলাতে তৈরি।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, গত ৯ ডিসেম্বর পিএলএ ফৌজ প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা পার হওয়ার চেষ্টা করছিল। এরপর ভারতের বাহিনী চিনের এই অপচেষ্টাকে বলিষ্ঠতার সঙ্গে চ্য়ালেঞ্জ করে। এরপর দুপক্ষের মধ্যে মুখোমুখি হয়ে যায়। পিএলএর ফৌজকে আটকে দেয় ভারতীয় সেনা। এরপর তাদের পোস্টে ফেরৎ যেতে বাধ্য করে।

ইতিমধ্যেই মঙ্গলবার চিন বিবৃতি দিয়ে জানিয়ে দেয়, পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। এএফপি সূত্রে এমনটাই খবর।

চিনের বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র ওয়াং ওয়েনবিন জানিয়েছেন, যতটা আমরা জেনেছি যে চিন-ভারত সীমান্তে আপাতত পরিস্থিতি স্থিতিশীল রয়েছে। দুপক্ষই সীমান্ত সংক্রান্ত ব্যাপারগুলি নিয়ে কূটনৈতিক ও সামরিক স্তরে আলোচনা চালাচ্ছে।

এবার সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে মুখ খুলেছে জাতিসঙ্ঘও। এই ধরনের ঘটনা যাতে আর না বাড়ে সেটা নিশ্চিত করার ব্যাপারেও জানানো হয়েছে। এদিক এর আগে গালওয়ান সীমান্তেও দুই দেশের সেনা মুখোমুখি হয়েছিল। এবার পরিস্থিতি কোন দিকে যায় সেদিকে তাকিয়ে রয়েছে গোটা বিশ্ব।

 

বন্ধ করুন