বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > প্রবল শীতেও অবিচল সেনা, ২০-র বেশি পাহাড়ি এলাকায় আরও মজবুত ভারতের ভিত
প্রবল শীতেও অবিচল সেনা, ২০-র বেশি পাহাড়ি এলাকায় আরও মজবুত ভারতের ভিত (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)
প্রবল শীতেও অবিচল সেনা, ২০-র বেশি পাহাড়ি এলাকায় আরও মজবুত ভারতের ভিত (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য রয়টার্স)

প্রবল শীতেও অবিচল সেনা, ২০-র বেশি পাহাড়ি এলাকায় আরও মজবুত ভারতের ভিত

  • এক সূত্র বলেছেন, 'লাদাখের আশেপাশে উড়ছে রাফাল যুদ্ধবিমান।'

ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গিয়েছে ভারত ও চিনের কোর কমান্ডার পর্যায়ের বৈঠক। সেই বৈঠকের আগে চিনকে কোণঠাসা করে প্যাংগং সো লেকের কাছে ২০ টির বেশি সংঘাতপূর্ণ পাহাড়ি এলাকায় নিজেদের অবস্থান আরও মজবুত করেছে ভারত। সরকারি সূত্র উল্লেখ করে একথা জানিয়েছে সংবাদসংস্থা পিটিআই। 

সূত্রের খবর, প্যাংগং সো লেকের উত্তর ও দক্ষিণ তীরে সেই পাহাড়ি এলাকাগুলি অবস্থিত। যা কৌশলগতভাবে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। একইভাবে হাড় কাঁপানো ঠান্ডা সত্ত্বেও গত কয়েকদিনে চুশুলের বিস্তীর্ণ সাধারণ এলাকায় নিজেদের শক্তি আরও বাড়িয়েছে ভারত। বিশেষত চিনের আগ্রাসন রুখতে ফিঙ্গার ২ এবং ৩ এলাকায় নিজেদের ভিত আরও মজবুত করেছে। তা নিয়ে চিনের তরফে প্রতিবাদ জানানো হলেও ভারত সাফ জানিয়ে দিয়েছে, সেই এলাকাগুলি প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখার এপারে অর্থাৎ ভারতের দিকে অবস্থিত।

শুধু তাই নয়, চিনা আগ্রাসনের কথা মাথায় রেখে সীমান্ত বরাবর সর্বোচ্চ পর্যায়ের সামরিক প্রস্তুতি নিশ্চিত করার জন্য লাদাখে চক্কর কাটতে পারে ভারতীয় বায়ুসেনার নয়া সদস্য রাফাল যুদ্ধবিমান। বিশেষত গত তিন সপ্তাহে শূন্যে তিনবার গুলি চালানোর ঘটনার পর বায়ুসেনা সেই কাজ করবে বলে সূত্রের খবর। অপর সূত্র সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেছেন, 'লাদাখের আশেপাশে উড়ছে রাফাল যুদ্ধবিমান।' তবে সে বিষয়ে বিস্তারিতভাবে কিছু জানাননি তিনি।

এদিকে পিটিআই জানিয়েছে, মস্কোর বৈঠকে যে পাঁচটি বিষয়ে ঐকমত্যে পৌঁছেছিলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শংকর ও চিনের বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই, তা কার্যকরের জন্য সোমবারের সামরিক বৈঠকে নির্দিষ্ট সময়সীমা নির্ধারণ করা হতে পারে। গত ১০ সেপ্টেম্বর সাংহাই কো-অপারেশন অর্গানাইজেশনের (এসসিও) সম্মেলেনর ফাঁকে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা থেকে সেনা সরানো, পরিস্থিতি উত্তপ্ত করবে এমন কোনও পদক্ষেপ থেকে বিরত থাকা, সীমান্ত সংক্রান্ত বিষয়ে সমস্ত চুক্তি ও প্রোটোকল মেনে চলা, সীমান্তে শান্তি ফিরিয়ে আনার মতো বিষয়গুলির উপর জোর দিয়েছিলেন দু'দেশের বিদেশমন্ত্রী।

সূত্রের খবর, সোমবারের বৈঠকে ভারতের প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভারতীয় সেনার লেহের ১৪ কোরের কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল হরিন্দর সিং। সেই দলে আছেন বিদেশ মন্ত্রকের যুগ্মসচিব পর্যায়ের একজন আধিকারিক এবং লেফটেন্যান্ট জেনারেল পিজিকি মেনন। যিনি আগামী মাসে ১৪ কোরের কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব নিতে পারেন। এই প্রথম সামরিক পর্যায়ের বৈঠকে সাউথ ব্লকের কোনও আধিকারিক থাকছেন। এক সূত্র বলেছেন, 'বৈঠক চলছে।’

বন্ধ করুন