বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > খাইবার-পাখতুনওয়ার মন্দিরে হিন্দুদের আমন্ত্রণ পাক কাউন্সিলের, ‘আপত্তি’ দিল্লির
ওয়াঘায় অবস্থিত ভারত-পাক সীমান্তের ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট  (HT_PRINT)
ওয়াঘায় অবস্থিত ভারত-পাক সীমান্তের ইন্টিগ্রেটেড চেকপোস্ট  (HT_PRINT)

খাইবার-পাখতুনওয়ার মন্দিরে হিন্দুদের আমন্ত্রণ পাক কাউন্সিলের, ‘আপত্তি’ দিল্লির

  • পাকিস্তানের খাইবার-পাখতুনওয়া প্রদেশে অবস্থিত একটি মন্দির পরিদর্শনের জন্য ভারত, আমেরিকা, সংযুক্ত আরব আমিরশাহি থেকে মোট ২৫০ হিন্দুকে আহ্বান জানাল পাকিস্তান হিন্দু কাউন্সিল।

পাকিস্তানের খাইবার-পাখতুনওয়া প্রদেশে অবস্থিত একটি মন্দির পরিদর্শনের জন্য ভারত, আমেরিকা, সংযুক্ত আরব আমিরশাহি থেকে মোট ২৫০ হিন্দুকে আহ্বান জানাল পাকিস্তান হিন্দু কাউন্সিল। তবে পাক কাউন্সিলের সেই আমন্ত্রণের তালিকাকে খারিজ করল ভারত। বদলে ভারত জানিয়েছে, এই দেশের উদ্যোক্তাদের বেছে নেওয়া ১৬০ জনকে পাকিস্তানে পাঠানো হবে।

জানা গিয়েছে, পরমহংস জি মহারাজের সমাধিতে আসতে তিন দেশের কয়েকজন হিন্দুকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে পাক কাউন্সিল। পরমহংস জি মহারাজ একজন সাধক ছিলে যিনি ১৯১৯ সালে খাইবার-পাখতুনখওয়ার তেরি গ্রামে মারা যান।

২০২০ সালের ডিসেম্বরে জমিয়ত উলেমা-ই-ইসলাম-ফজল পার্টির নেতার নেতৃত্বে জনতা এই মন্দিরে তাণ্ডব চালিয়েছিল। ভাঙচুরের সেই ঘটনার পরে পাক সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি গুলজার আহমেদের নির্দেশে তেরির মন্দিরটি পুনরুদ্ধার করেছিল পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ। আহমদ পরে গতবছর সেই মন্দিরে গিয়ে দীপাবলি উদযাপন করেছিলেন। হিন্দু সংখ্যালঘুদের সাথে সংহতি প্রকাশ করতেই এমনটা করেছিলেন তিনি এবং পাকিস্তানের অন্যান্য অংশ থেকে আসা তীর্থযাত্রীদের স্বাগত জানিয়েছিলেন তিনি।

তবে এখন পাক কাউন্সিলের আমন্ত্রণ তালিকা নিয়ে অস্বচ্ছতার অভিযোগ উঠেছে ভারতে। তীর্যযাত্রার মৌলিকতা লঙ্ঘন করে বলে জানিয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। এদিকে পাকিস্তান হিন্দু কাউন্সিলের নেতা রমেশ কুমার পাকিস্তানি মিডিয়াকে বলেছেন যে এই কাউন্সিলটি দ্বিতীয়বারের মতো অন্যান্য দেশের হিন্দুদের পাকিস্তানে আমন্ত্রণ জানিয়েছে। পাকিস্তান কতটা সহনশীল এবং এখানের বহুত্ববাদী সমাজের অস্তিত্ব দেখতেই বিদেশিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে বলে জানান রমেশ কুমার।

 

বন্ধ করুন