বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > উত্তর ভারতের নানান ঘাঁটিতে মিগ-২৯কে যুদ্ধবিমান পাঠানোর পরিকল্পনা নৌসেনার
উত্তর ভারতের বিভিন্ন ঘাঁটিতে মিগ-২৯কে যুদ্ধবিমান পাঠানোর পরিকল্পনা করল ভারতীয় নৌসেনা।
উত্তর ভারতের বিভিন্ন ঘাঁটিতে মিগ-২৯কে যুদ্ধবিমান পাঠানোর পরিকল্পনা করল ভারতীয় নৌসেনা।

উত্তর ভারতের নানান ঘাঁটিতে মিগ-২৯কে যুদ্ধবিমান পাঠানোর পরিকল্পনা নৌসেনার

  • উত্তর ভারতের বিভিন্ন ঘাঁটিতে মিগ-২৯কে যুদ্ধবিমান পাঠানোর পরিকল্পনা করল ভারতীয় নৌসেনা।

লাদাখে চিনের সঙ্গে সীমান্ত বিরোধের আবহে উত্তর ভারতের বিভিন্ন ঘাঁটিতে মিগ-২৯কে যুদ্ধবিমান পাঠানোর পরিকল্পনা করল ভারতীয় নৌসেনা। মঙ্গলবার পরিচয় গোপন করার শর্তে এই খবর জানিয়েছে ওয়াকিবহাল সূত্র।

নৌসেনার অধীনে ৪০টিরও বেশি মিগ-২৯কে যুদ্ধবিমান রয়েছে, যার মধ্যে ১৮টি রয়েছে ভারতের একমাত্র যুদ্ধবিমানবাহী রণতরী আইএনএস বিক্রমাদিত্য-তে। বাকি বিমানগুলি রয়েছে গোয়ায় নৌসেনার ঘাঁটিতে। এর মধ্যে কিছু ফাইটার জেট বর্তমান পরিস্থিতির বিচার করে উত্তর সীমান্তে পাঠানো হয়েছে। তবে ঠিক কী ধরনের কাজে তাদের লাগানো হবে, সে সম্পর্কে জানা যায়নি। 

প্রসঙ্গত, লাদাখে সীমান্ত সংঘর্ষে যুক্ত রয়েছে নৌসেনা। ওই অঞ্চলে নজরদারির কাজে ব্যবহার করা হচ্ছে নৌসেনার পি-৮১ বিমান। মার্কিন এই বিমান এর আগে ২০১৭ সালে ডোকলাম সীমান্ত সংঘর্ষেও কাজে লাগানো হয়েছিল।

এ ছাড়া নৌবাহিনীর প্রাথমিক দায়িত্বের মধ্যে রয়েছে সাবমেরিন-দমনকারী সামুদ্রিক যুদ্ধ অভিযান, স্থলযুদ্ধ দমনকারী সামরিক অভিযান, সামরিক অনুসন্ধান, নজরদারি এবং সমুদ্রসীমায় সুরক্ষা নিশ্চিত করা। 

ভারত মহাসাগর অঞ্চলেও যতেষ্ট সক্রিয় অবস্থান বজায় রেখেছে ভারতীয় নৌবাহিনী। গত সোমবার মার্কিন নৌসেনার সঙ্গে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জের কাছে যৌথ নৌ-মহড়ায় অংশগ্রহণ করেছে ভারত। মহড়ায় অংশগ্রহণ করে ভারতের ৮টি যুদ্ধজাহাজ। আমেরিকার নৌবহরকে নেতৃত্ব দেয় বিশ্বের অন্যতম বৃহত্তম যুদ্ধবিমানবাহী রণতরী ইউএসএস নিমিট্‌জ। 

এ ছাড়াও ভারতীয় রণতরী নিযুক্ত রয়েছে পারস্য উপসাগর এবং মালাক্কা প্রণালী পর্যন্ত এবং বঙ্গোপসাগরের উত্তরাংশ থেকে আফ্রিকা উপকূলের দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চলে পর্যন্ত। 

বন্ধ করুন