বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আগামী ৭ দিন এই সময় কাটতে পারবেন না ট্রেনের টিকিট, হবে না বাতিলও
পুরনো ছন্দে ফিরতে সাতদিন ছ'ঘণ্টা করে ‘প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেম’ বন্ধ থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী)
পুরনো ছন্দে ফিরতে সাতদিন ছ'ঘণ্টা করে ‘প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেম’ বন্ধ থাকবে। (ছবিটি প্রতীকী)

আগামী ৭ দিন এই সময় কাটতে পারবেন না ট্রেনের টিকিট, হবে না বাতিলও

  • পুরনো ছন্দে ফেরার প্রস্তুতি চলবে।

পুরনো ছন্দে ফিরতে সাতদিন ছ'ঘণ্টা করে ‘প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেম’ বন্ধ থাকবে। আজ (১৪ নভেম্বর) রাত থেকে ২০ নভেম্বর রাত পর্যন্ত বন্ধ থাকবে সেই পরিষেবা। তবে সারাক্ষণ নয়, রাত ১১ টা ৩০ মিনিট থেকে পরদিন ভোর ৫ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত ‘পিআরএস’ পরিষেবা মিলবে না। অর্থাৎ সেই সময়ের মধ্যে ট্রেনের টিকিট কাটা যাবে না। করা যাবে না বাতিল।

রবিবার ভারতীয় রেলের তরফে বিবৃতি জারি করে জানানো হয়েছে, যাত্রী পরিষেবা স্বাভাবিক করতে এবং ধাপে ধাপে প্রাক-করোনাভাইরাস পর্যায়ে ফিরে যেতে আগামী সাতদিন রাতের ফাঁকা সময় ছ'ঘণ্টার জন্য ‘প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেম’ বন্ধ থাকবে। প্রতিদিন রাত ১১ টা ৩০ মিনিট থেকে পরদিন ভোর ৫ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত পরিষেবা মিলবে না। আজ (রবিবার) রাত ১১ টা ৩০ মিনিট থেকে ‘পিআরএস’ বন্ধ রাখা হবে। যা বন্ধ থাকবে সোমবার ভোর ৫ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত। এভাবে আগামী ২০ নভেম্বর পর্যন্ত ‘পিআরএস’ বন্ধ রাখা হবে। অর্থাৎ ২১ নভেম্বর ভোর ৫ টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত পরিষেবা বন্ধ থাকবে। আগামী সাতদিন ওই ছ'ঘণ্টা কোনও টিকিট রিজার্ভেশন, বর্তমান বুকিং খতিয়ে দেখা, টিকিট বাতিলের মতো ‘প্যাসেঞ্জার রিজার্ভেশন সিস্টেম’ সংক্রান্ত পরিষেবা মিলবে না। বাকি যা পরিষেবা আছে, তা স্বাভাবিক ছন্দেই চলবে।

তবে কবে থেকে পুরনো ফর্মে ফিরবে ট্রেনগুলি, তা নির্দিষ্টভাবে এখনও জানানো হয়নি। বিষয়টি নিয়ে শুক্রবার রেলের এক উচ্চপদস্থ আধিকারিক সংবাদসংস্থা পিটিআইকে বলেছেন, ‘আঞ্চলিক রেলওয়েগুলিকে (জোনাল রেলওয়ে) জানিয়ে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এখন থেকেই সেই নির্দেশ কার্যকর করতে বলা হলেও সেই প্রক্রিয়া চালু হতে এক থেকে দু'দিন লাগবে।’

বন্ধ করুন