মঙ্গলবার থেকে চালু হবে ১৫ জোড়া যাত্রীবাহী ট্রেন। বুকিং শুরু সোমবার বিকেল ৪টে থেকে।
মঙ্গলবার থেকে চালু হবে ১৫ জোড়া যাত্রীবাহী ট্রেন। বুকিং শুরু সোমবার বিকেল ৪টে থেকে।

চালু হচ্ছে যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা, সোমবার বিকেল থেকে শুরু আসন সংরক্ষণ

  • আগামী ১২ মে থেকে প্রথম দফায় চালু করা হচ্ছে ৩০টি রিটার্ন জার্নি-সহ ১৫ জোড়া ট্রেন।

আগামিকাল, সোমবার বিকেল ৪টে থেকে সীমিত সংখ্যক ট্রেনের জন্য আসন সংরক্ষণ চালু করতে চলেছে ভারতীয় রেল। সংরক্ষণ হবে IRCTC ওয়েবসাইটের মাধ্যমে। 

আগামী ১২ মে থেকে ক্রমে যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা চালু করতে চলেছে ভারতীয় রেল। প্রথম দফায় চালু করা হচ্ছে ৩০টি রিটার্ন জার্নি-সহ ১৫ জোড়া ট্রেন। 

রেল মন্ত্রক সূত্রে জানা গিয়েছে, এই ট্রেনগুলি বিশেষ ট্রেন হিসেবে নয়াদিল্লি স্টেশন এবং ডিব্রুগড়, আগরতলা, হাওড়া, পটনা, বিলাসপুর, রাঁচি, ভুবনেশ্বর, সেকেন্দ্রাবাদ, বেঙ্গালুরু, চেন্নাই, তিরুবনন্তপুরম, মাদগাঁও, মুম্বই সেন্ট্রাল, আমদাবাদ ও জম্মু তাওয়াই স্টেশনের মধ্যে চলাচল করবে। 

আগামিকাল বিকেল ৪টে থেকে এই ট্রেনগুলিতে আসন সংরক্ষণ প্রক্রিয়া চালু করা হবে। শুধুমাত্র IRCTC ওয়েবসাইটের মাধ্যমেই আসন সংরক্ষণ করা যাবে। 

রেল স্টেশনের কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি বন্ধ থাকছে। এই কারণে পাওয়া যাবে না প্ল্যাটফর্ম টিকিটও। স্টেশনে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে শুধুমাত্র বৈধ টিকিটধারীদেরই। 

করোনা সংক্রমণ রোধে প্রত্যেক যাত্রীকে মাস্ক অথবা বিকল্প মুখঢাকা আচ্ছাদন ব্যবহার করতে হবে এবং ট্রেন ছাড়ার আগে স্ক্রিনিং পদ্ধতি সম্পূর্ণ করতে হবে। শুধুমাত্র যে সমস্ত যাত্রীর মদ্যে করোনা উপসর্গ নেই, তাঁদেরই ট্রেনে ওঠার অনুমতি দেওয়া হবে। 

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যে ২০,০০০ রেলকামরা Covid-19 পরিষেবা কেন্দ্র হিসেবে রূপান্তর করা হয়েছে। একই সঙ্গে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিজরাজ্যে ফেরাতে প্রতিদিন ৩০০টি ট্রেন শ্রমিক স্পেশ্যাল হিসেবে চলাচল করছে। এর জেরে ভবিষ্যতে নতুন রুটে স্পেশ্যাল ট্রেনের সংখ্যা বাড়াতে গেলে কামরার জোগান এবং অন্যান্য বিষয় বিবেচনা করে দেখে সিদ্ধান্ত নিতে হবে রেল মন্ত্রককে।

 

বন্ধ করুন