করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে ছড়াচ্ছে প্রবল আতঙ্ক।
করোনা ভাইরাসের সংক্রমণে ছড়াচ্ছে প্রবল আতঙ্ক।

উহান ফেরত ছাত্ররা অজান্তে ছড়াতে পারেন করোনা ভাইরাস, আশঙ্কা

এখনও পর্যন্ত চিন থেকে ফিরে আসা কোনও ভারতীয়র শরীরে এই ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া না গেলেও চিন সরকার এই ভাইরাস সংক্রমণের কথা জানানোর পরে ভারতে মহামারীর আশঙ্কা ঘনিয়েছে।

অজান্তেই মারাত্মক করোনা ভাইরাস বয়ে আনতে পারেন চিন থেকে দেশে ফেরা ভারতীয় ছাত্ররা। এমনই আশঙ্কা করছে চিকিত্সক মহল।

চিনা নববর্ষ উপলক্ষে ছুটি পেয়ে গত দুই সপ্তাহে উহান থেকে দেশে ফিরেছেন বেশ কিছু ভারতীয় পড়ুয়া। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, উহানে ৬০০ বা তার বেশি ভারতীয় শিক্ষার্থী বাস করেন।

দুই সপ্তাহ আগে ভারতে ফিরেছেন ওই সমস্ত পড়ুয়া। তার আগেই অবশ্য নিঃশব্দে গোটা চিনে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে ভয়াবহ করোনা ভাইরাস। এ পর্যন্ত ওই ভাইরাসজনিত ৭০০ জনের সংগক্রামিত হওয়ার খবর পাওয়া গিয়েছে এবং ১৭ জন মারা গিয়েছেন।

বেশিরভাগ ঘটনাই উহান এবং সেখানকার মাছ ও সামুদ্রিক খাদ্যপণ্যের বাজারের সঙ্গে সম্পর্কিত বলে জানা গিয়েছে। এমনকি চিকিত্সা করতে গিয়ে চিকিত্সক-সহ ১৫ জন স্বাস্থ্যকর্মী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলেও জানা গিয়েছে।

এখনও পর্যন্ত চিন থেকে ফিরে আসা কোনও ভারতীয়র শরীরে এই ভাইরাসের অস্তিত্ব পাওয়া না গেলেও চিন সরকার এই ভাইরাস সংক্রমণের কথা জানানোর পরে ভারতে মহামারীর আশঙ্কা ঘনিয়েছে।

এই ভাইরাস সংক্রামিত হলে প্রবল জ্বর, শ্বাসকষ্ট ও ফুসফুসের সমস্যা দেখা দেয় বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। তবে প্রাথমিক ভাবে সাধারণ সর্দি বা ফ্লু-এর সঙ্গেও রোগের উপসর্গ মেলে বলে জানা গিয়েছে। এর ফলে রোগটি ধরা পড়তে দেরি হচ্ছে। এর উপর সংক্রামিত হওয়ার প্রায় ২ সপ্তাহ পরে রোগের বহিঃপ্রকাশ হচ্ছে বলেও ফাঁপরে চিকিত্সকরা।

বন্ধ করুন