বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আরও ১৫ বছর ভারতীয়দের বেশি দামে কিনতে হতে পারে ভোজ্য তেল!
আরও ১৫ বছর ভারতীয়দের বেশি দামে কিনতে হতে পারে ভোজ্য তেল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান)
আরও ১৫ বছর ভারতীয়দের বেশি দামে কিনতে হতে পারে ভোজ্য তেল। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান)

আরও ১৫ বছর ভারতীয়দের বেশি দামে কিনতে হতে পারে ভোজ্য তেল!

  • আগামী ৪ বছরে দেশে ভোজ্য তেলের চাহিদা ১৭ শতাংশ বাড়তে পারে।

আরও ১৫ বছর ভারতীয়দের বেশি দামে কিনতে হতে পারে ভোজ্য তেল!

আগামী ১৫ বছর ধরে বেশি দাম দিয়েই ভোজ্য তেল কিনতে হতে পারে ভারতীয়দের। ক্রমবর্ধমান চাহিদার কারণে বিদেশ থেকে বেশই দামে ভোজ্যতেল আমদানি করার জন্য পকেটে চাপ জারি থাকবে দেশের আম জনতার।

তেল উত্পাদনকারী সংস্থাগুলির সংগঠন ‘সলভেন্ট এক্সট্র্যাক্টর অ্যাসোসিয়েশন’-এর এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর বিভি মেহতা এই বিষয়ে মিন্টকে বলেছেন যে আগামী ৪ বছরে দেশে ভোজ্য তেলের চাহিদা ১৭ শতাংশ বাড়বে। এর জেরে ভারতকে আরও বেশি পরিমাণ ভোজ্য তেল আমদানি করতে হবে। কারণ আগামী ৪ বছরে দেশে সেই পরিমাণ ভোজ্য তেল উত্পাদন বাড়বে না। দেশের উত্পাদন ও আমদানির পরিমাণে অসামঞ্জস্য থাকার জেরেই সাধারণ মানুষের কপালে তিন্তার ভাঁজ। বিভি মেহতা বলেন ২০২১-২২ অর্থবর্ষে দেশে ১০ মিলিয়ন টন ভোজ্য তেল উত্পাদন হবে। যদিও দেশে ভোজ্য তেলের চাহিদা হবে ২৩ মিলিয়ন টন। এর অর্থ দেশের চাহিদা মেটাতে উত্পাদনের থেকে বেশি পরিমাণ ভোজ্য তেল আমদানি করতে হবে দেশকে।

উল্লেখ্য, ভারত বিশ্বের সর্ববৃহত্ তেল আমদানিকারী দেশ। বিগত বহু বছরের প্রচেষ্টাতেও ভোজ্য তেল আমদানির পরিমাণ কমাতে সক্ষম হচ্ছে না ভারত। এর কারণ দেশে ভোজ্য তেলের উত্পাদনে ঘাটতি। আর তার মূলে রয়েছে কৃষকদের তৈলবীজ ফলনে অনীহা। তৈলবীজের বদলে ভারতের কৃষকরা তুলা বা ধানের ফলনে বেশি আগ্রহী। এই মনোভাবের জেরে সাধারণ মানুষের হেঁশেলে আগুন ধরছে। এবং আগামী ১৫ বছর ধরে এই আগুন জ্বলতে থাকবে বলে আশঙ্কা বিশেষজ্ঞদের।

বন্ধ করুন