বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > IIT Kanpur: প্রাক্তন ছাত্র বর্তমানে ইন্ডিগো-র সহ প্রতিষ্ঠাতা! IIT Kanpurকে ১০০ কোটির অনুদান গাঙ্গওয়ালের
বাঁ দিক থেকে , আইআইটি কানপুরের ডিরেক্টর অভয় কারান্ডিকার, ইন্ডিগোর সহ প্রতিষ্ঠাতা রাকেশ গাঙ্গওয়াল। ছবি সৌজন্য- টুইটার/অভয় কারান্ডিকার

IIT Kanpur: প্রাক্তন ছাত্র বর্তমানে ইন্ডিগো-র সহ প্রতিষ্ঠাতা! IIT Kanpurকে ১০০ কোটির অনুদান গাঙ্গওয়ালের

  • ১৯৭৫ সালে আইআইটি কানপুর থেকে স্নাতক হন রাকেশ গাঙ্গওয়াল। ২০০৩ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত তিনি ছিলেন ওয়ার্ল্ডস্প্যানের চেয়ারম্যান ও প্রেসিডেন্ট। এই ইন্দো আমেরিকার ব্যবসায়ী পরবর্তীকালে ইন্ডিগোর সহ প্রতিষ্ঠাতা হন। জানা যায় এয়ারলাইন্স দুনিয়ার সঙ্গে ১৯৮০ সাল থেকে সম্পর্ক রয়েছে গাঙ্গওয়ালের।

ক্যাম্পাসের ভিতর তৈরি হচ্ছে 'স্কুল অফ মেডিক্যাল সায়ান্স', যা শুধু এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রেই তাৎপর্যপূর্ণ বিষয় নয়, তার সঙ্গে দেশের চিকিৎসামহলে একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। আইআইটি কানপুর ক্যাম্পাসের ভিতর এই নয়া উদ্যোগে সহায়তা করতে এবার এগিয়ে এলেন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রাক্তন ছাত্র রাকেশ গাঙ্গওয়াল। যাঁর বর্তমান পরিচিতি হল তিনি ইন্ডিয়ো এয়ারলাইন্সের সহ প্রতিষ্ঠাতা।

সোমবার আইআইটি কানপুরের ডিরেক্টর অভয় কারান্ডিকার একটি টুইট পোস্টে জানিয়েছেন, রাকেশ গাঙ্গওয়ালের অনুদানের অঙ্ক। তিনি জানান, আইআইটির এই প্রাক্তন পড়ুয়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উদ্যোগে ১০০ কোটি টাকার অঙ্ক অনুদান হিসাবে দিয়েছেন। আইআইটি কানপুরের ডিরেক্টর অভয় কারান্ডিকার এও জানিয়েছেন যে, এই অঙ্কের টাকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে দেওয়া কোনও প্রাক্তনীর তরফে সবচেয়ে বড় অঙ্কের অনুদান। টুইটে অভয় কারান্ডিকর লেখেন,'আইআইটি কানপুরের তরফে বড় খবর। একটি বড় পদক্ষেপে আমাদের প্রাক্তনী মিস্টার রাকেশ গাঙ্গওয়াল, যিনি ইন্ডিগো এয়ারলাইন্সের সহ প্রতিষ্ঠাতা, তিনি অন্যতম সবচেয়ে বড় অঙ্কের অনুদান ১০০ কোটি টাকা দিয়েছেন, যা মূলত আইআইটিতে স্কুল অফ মেডিক্যাল সায়ান্স অ্যান্ড টেকনোলজির দিকে তাকিয়ে সহায়তা স্বরূপ দেওয়া হয়েছে।'

উল্লেখ্য, ১৯৭৫ সালে আইআইটি কানপুর থেকে স্নাতক হন রাকেশ গাঙ্গওয়াল। ২০০৩ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত তিনি ছিলেন ওয়ার্ল্ডস্প্যানের চেয়ারম্যান ও প্রেসিডেন্ট। এই ইন্দো আমেরিকার ব্যবসায়ী পরবর্তীকালে ইন্ডিগোর সহ প্রতিষ্ঠাতা হন। জানা যায় এয়ারলাইন্স দুনিয়ার সঙ্গে ১৯৮০ সাল থেকে সম্পর্ক রয়েছে গাঙ্গওয়ালের। আইআইটি থেকে পাশ করার পর তিনি পেনসিলভেনিয়া ইউনিভার্সিটি থেকে এমবিএ পাশ করেন।

উল্লেখ্য, ইঞ্জিনিয়ারিং ও প্রযুক্তিবিজ্ঞানের বিষয়ে দেশের অন্যতম নামী প্রতিষ্ঠান আইআইটি কানপুর। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একাধিক প্রাক্তনী বিশ্বের বিভিন্ন ক্ষেত্রে সাফল্যের অন্যমাত্রা ধরে রেখেছেন। তাঁদের মধ্যে অন্যতম রাকেশ গাঙ্গওয়াল। আপাতত এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে গবেষণা সহ উন্নততর শিক্ষাব্যবস্থা তৈরির জন্য ফান্ড ঘিরে উদ্যোগ রয়েছে চরমে। তারই মধ্যে অন্যতম পদক্ষেপ সোমবারের এই ঘটনা। উল্লেখ্য, শুধু রাকেশ গাঙ্গওয়ালই নন, এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একাধিক প্রাক্তনী এগিয়ে এসেছেন বিভিন্ন ক্ষেত্রে অনুদানের নিরিখে। শুধু আইআইটি কানপুরই নয়, আইআইটি বম্বে ও দিল্লিও তাদের প্রাক্তনীদের সাপোর্ট গ্রুপ থেকে বিভিন্ন উদ্যোগের হেতু নানান ধরনের সাহায্য পেয়ে চলেছে।

বন্ধ করুন