বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > 'আমি অভিভূত', রেজাং লার বীর যোদ্ধাকে হুইল চেয়ারে করে নিয়ে এলেন রাজনাথ স্বয়ং
ব্রিগেডিয়ার (অবসরপ্রাপ্ত) আরভি জটারকে হুইল চেয়ারে করে নিয়ে যাচ্ছেন রাজনাথ সিং (ছবি সৌজন্যে টুইটার)
ব্রিগেডিয়ার (অবসরপ্রাপ্ত) আরভি জটারকে হুইল চেয়ারে করে নিয়ে যাচ্ছেন রাজনাথ সিং (ছবি সৌজন্যে টুইটার)

'আমি অভিভূত', রেজাং লার বীর যোদ্ধাকে হুইল চেয়ারে করে নিয়ে এলেন রাজনাথ স্বয়ং

  • রেজাং লা ওয়ার মেমোরিয়াল উদ্বোধনে গিয়ে রাজনাথ সিং দেখা করেন ব্রিগেডিয়ার (অবসরপ্রাপ্ত) আরভি জটারের সঙ্গে। তাঁর সঙ্গে একটি ছবিও টুইটারে পোস্ট করেন তিনি। 

বৃহস্পতিবার ১৯৬২ সালের ভারত-চিন যুদ্ধের স্মৃতিচারণা করতে দেখা গেল প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংকে। রেজাং লা ওয়ার মেমোরিয়াল উদ্বোধনে গিয়ে গতকাল তিনি দেখা করেন ব্রিগেডিয়ার (অবসরপ্রাপ্ত) আরভি জটারের সঙ্গে। তাঁর সঙ্গে একটি ছবিও টুইটারে পোস্ট করেন। সেখানে দেখা যায় অবসরপ্রাপ্ত সেনা আধিকারিককে হুইল চেয়ারে করে নিয়ে যাচ্ছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নিজেই। বীরযোদ্ধার প্রতি নিজের শ্রদ্ধার কথা ব্যক্ত করেন টুইট বার্তায়।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং এক টুইট বার্তায় লেখেন, 'আমি সৌভাগ্যবান যে সাহসী সৈনিক ব্রিগেডিয়ার (অবসরপ্রাপ্ত) আরভি জটারের সঙ্গে দেখা করার সুযোগ হয়েছিল। রেজাং লা লড়াইয়ের সময় তিনি কোম্পানি কমান্ডার ছিলেন। তাঁর প্রতি শ্রদ্ধাবোধে আমি অভিভূত এবং তাঁর সাহসিকতাকে অভিনন্দন জানাই। ঈশ্বর তাঁকে সুস্থ রাখুন এবং তাঁকে দীর্ঘায়ু প্রদান করুক।'

১৯৬২ সালের ইন্দো-চিন যুদ্ধে শদিহ সেনাদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে রাজনাথ বৃহস্পতিবার বলেন, 'ভারতের জন্য আত্মবলিদান দেওয়া সৈনিকরা শুধু ইতিহাসের পাতায় নয় আমাদের মনেও অমর।' রাজনাথ বীর যোদ্ধাদের সাহসিকতাকে কুর্নিশ জানিয়ে আরও বলেন, 'রেজাং লার ঐতিহাসিক যুদ্ধ ১৮ হাজার ফুট উচ্চতায় লড়াই করা হয়েছিল। বর্তমান সময়ে দাঁড়িয়েও এই উচ্চতায় যুদ্ধ করার কথা চিন্তা করা প্রায় অসম্ভব। মেজর শয়তান সিং ও তাঁর নেতৃত্বে জওয়ানরা নিজেদের শেষ নিঃশ্বাস অবধি শত্রুদের বিরুদ্ধে লড়াই করে গিয়েছেন। এবং বীরত্ব ও ত্যাগের এক নতুন ইতিহাস তৈরি করে গিয়েছেন।'

 

বন্ধ করুন