বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Indonesia Earthquake: ৬ দিনে দ্বিতীয়বার, ৬ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানল ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রায়

Indonesia Earthquake: ৬ দিনে দ্বিতীয়বার, ৬ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানল ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রায়

৬ মাত্রার ভূমিকম্প আঘাত হানল ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রায়

এর আগে গত ১০ জানুয়ারি তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছিল ইন্দোনেশিয়ার মালুকু প্রদেশের তানিম্বর দ্বীপপুঞ্জে। ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে পূর্ব তাইমোর, এমনকী অস্ট্রেলিয়ায়ও।

ফের কেঁপে উঠল ইন্দোনেশিয়া। সেদেশের সুমাত্রা সাক্ষী থাকল তীব্র মাত্রার ভূমিকম্পের। রিখটার স্কেলে কম্পনের মাত্রা ছিল ৬। এই নিয়ে গত ৬দিনে দ্বিতীয়বার তীব্র ভূমিকম্প অনুভূত হল ইন্দোনেশিয়ায়। জানা গিয়েছে, কম্পনের উৎসস্থল ছিল ইন্দোনেশিয়ার সিনকিল শহরের ৪৮ কিনি দক্ষিণ-দক্ষিণ-পূর্ব প্রান্তে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৪৮ কিমি গভীরে। স্থানীয় সময় সাড়ে ৬টায় এই ভূমিকম্প অনুভূত হয়। ভূমিকম্পের জেরে কেঁপে ওঠে উৎসস্থল থেকে ১২০ কিমি দূরের জায়গাও। এর আগে গত ১০ জানুয়ারিও তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছিল ইন্দোনেশিয়া। (আরও পড়ুন: নেপালে গেলে আপনাকেও চড়তে হতে পারে 'কলঙ্কিত' ইয়েতি এয়ারেই, জানুন সংস্থার বিশদ)

গত ১০ জানুয়ারি তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছিল ইন্দোনেশিয়ার মালুকু প্রদেশের তানিম্বর দ্বীপপুঞ্জে। ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে পূর্ব তাইমোরেও। সেই কম্পনের তীব্রতা ছিল রিখটার স্কেলে ৭.৬। মূল ভূমিকম্পের পর অন্তত চারটি আফটারশকে কেঁপে ওঠে গোটা এলাকা। আফটারশকগুলি এসেছে রিখটার স্কেলে তার তীব্রতা ছিল ৫.৫। কম্পনের তীব্রতা এতটাই ছিল যে উত্তর অস্ট্রেলিয়াতে পর্যন্ত এটি অনুভূত হয়েছে। ৩ থেকে ৫ সেকেন্ড স্থায়ী ছিল সেই কম্পন। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ১৩০ কিমি গভীরে এই ভূমিকম্পের কেন্দ্রস্থল ছিল। এই আবহে প্রাথমিক ভাবে সুনামির সতর্কতা জারি করা হলেও পরে ভোরের দিকে তা প্রত্যাহার করা হয়।

আরও পড়ুন: পোখরার পুরনো ও নতুন বিমানবন্দরের মাঝে নদীর তীরে ভেঙে পড়ে বিমানটি, দেখুন ভিডিয়ো

উল্লেখ্য, ইন্দোনেশিয়া প্রায়শই ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে এবং এটি প্রশান্ত মহাসাগরের 'রিং অফ ফায়ার'-এ অবস্থিত। সেখানেই বিশ্বের বেশিরভাগ আগ্নেয়গিরি আছে। পাশাপাশি এই অঞ্চলেরই বিশ্বের সর্বাধির ভূমিকম্প অনুভূত হয়ে থাকে। এর আগে, নভেম্বর মাসেই ৫.৬ তীব্রতায় ভূমিকম্প হয় ইন্দোনেশিয়ায়। তাতে ৬০০-র বেশি মানুষ মারা গিয়েছিলেন। এদিকে এর আগে ২০০৪ সালের ২৬ ডিসেম্বরে বিশ্বের অন্যতম ভয়ানক ভূমিকম্প ও সুনামির সাক্ষী থেকেছিল ইন্দোনেশিয়ার এই সুমাত্রা দ্বীপ। রিখটার স্কেলে ৯.১ মাত্রার সেই কম্পন অনুভূত হয়েছিল ভারতের দক্ষিণ উপকূল, পূর্ব ভারত, আন্দামান ও নিকোবার দ্বীপপুঞ্জ এবং বাংলাদেশেও।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বন্ধ করুন