বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > আরও এক 'মুক্তধারা': রেডিয়ো স্টেশন চালাবেন কুরুক্ষেত্র জেলের বন্দিরা
ফাইল ছবি : হিন্দুস্তান টাইমস (HT FILE PHOTO)

আরও এক 'মুক্তধারা': রেডিয়ো স্টেশন চালাবেন কুরুক্ষেত্র জেলের বন্দিরা

কারা কর্তৃপক্ষ ‘তিনকা টিঙ্কা ফাউন্ডেশন’-এর সহযোগিতায় তিনকা জেল রেডিয়ো প্রকল্প চালু করছে। রেডিয়ো স্টেশন চালাতে আগ্রহী বন্দিদের অডিশনও নেওয়া হবে।

জেল থেকেই রেডিয়ো স্টেশন চালাবেন বন্দিরা। উত্তরপ্রদেশের কুরুক্ষেত্র জেলা কারাগারের একদল বন্দিকে দেওয়া হবে বিশেষ প্রশিক্ষণও। এ যেন বাস্তবেই আরও এক মুক্তধারা। কারা কর্তৃপক্ষ ‘তিনকা টিঙ্কা ফাউন্ডেশন’-এর সহযোগিতায় তিনকা জেল রেডিয়ো প্রকল্প চালু করছে। রেডিয়ো স্টেশন চালাতে আগ্রহী বন্দিদের অডিশনও নেওয়া হবে।

জেল সুপার সোমনাথ জগতের মতে, কারাগারে একটি রেডিয়ো স্টেশন স্থাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শীঘ্রই অডিশন শুরু হবে। তিনি জানান, কারাগারে ৩২ জন মহিলা-সহ মোট ৬৭০ জন বন্দি রয়েছেন। তঁদের মধ্যে থেকেই একটা দলকে চূড়ান্ত করবে ‘তিনকা তিনকা ফাউন্ডেশন’-এর প্রতিষ্ঠাতা ডাঃ বর্তিকা নন্দা। তিনি বলেন, কিছু আরজে ছাড়াও স্টুডিয়ো চালানোর জন্য কিছু প্রযুক্তিগত বিশেষজ্ঞের প্রয়োজন হবে। অডিশনের পরে নির্বাচিতদের যথাযথ প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে।

তিনি বলেন, আগামী বছরের জানুয়ারিতেই রেডিয়ো স্টেশনটি চালু করা হবে। অনুষ্ঠানের বিষয়বস্তু সম্পর্কে তিনি বলেন, 'কুরুক্ষেত্রের ঐতিহাসিক গুরুত্ব আছে। এটি গীতার ভূমি হিসেবে পরিচিত। রেডিয়ো অনুষ্ঠানের বিষয়বস্তুতেও তার প্রতিফলন থাকবে। এটি বন্দিদের কুরুক্ষেত্রের ঐতিহাসিক গুরুত্ব সম্পর্কেও সচেতন করবে।

তবে এই প্রথম নয়। এর আগে পানিপথ জেলা কারাগারেও চলতি বছরের জানুয়ারিতে বন্দিদের জন্য বন্দিদের দ্বারা পরিচালিত একটি রেডিয়ো স্টেশন চালু হয়। পরে আরও ছয়টি জেলা কারাগারে রেডিয়ো স্টেশন স্থাপন করা হয়।

আধিকারিকরা জানিয়েছেন, প্রতিটি জেল ব্যারাকে একজন করে স্পিকার থাকবেন। প্রতিদিন এক ঘণ্টা রেডিয়ো সম্প্রচার করা হবে। নন্দা জানান, ২০১৩ সালে তিহার জেল প্রথম এই ধরনের একটি রেডিয়ো স্টেশন শুরু করেছিল। ২০১৯ সালে আগ্রা জেলেও একটি স্টেশন চালু হয়েছে।

ছে।

বন্ধ করুন