বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভারতীয় নৌবাহিনীর টুপিতে যুক্ত হচ্ছে নয়া পালক, ১৮ই নভেম্বর আসছে INS Visakhapatnam
আরও ক্ষিপ্ত, আরও উন্নত করা হচ্ছে ভারতীয় নৌ বহরকে. (Twitter- @indiannavy) (HT_PRINT)
আরও ক্ষিপ্ত, আরও উন্নত করা হচ্ছে ভারতীয় নৌ বহরকে. (Twitter- @indiannavy) (HT_PRINT)

ভারতীয় নৌবাহিনীর টুপিতে যুক্ত হচ্ছে নয়া পালক, ১৮ই নভেম্বর আসছে INS Visakhapatnam

  •  প্রযুক্তিগত ক্ষেত্রে আরও উন্নত করা হচ্ছে ভারতীয় নৌবহর

সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে মিসাইল ধ্বংসকারী আইএনএস বিশাখাপত্তনমকে আগামী ১৮ই নভেম্বর তুলে দেওয়া হবে ভারতীয় নৌ বাহিনীর হাতে। খোদ প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংও এমনটাই আশা করছেন।পি-১৫বিকে ২৮শে অক্টোবর তুলে দেওয়া হয়েছিল বাহিনীর হাতে। পাশাপাশি আইএনএস ভেলাকেও শীঘ্রই কার্যকরী করা হবে। বিদেশ দফতরের মন্ত্রী এস জয়শংকর অথবা নেভি চিফ অ্যাডমিরাল করমবীর সিং এই ডুবোজাহাজের সূচণা করতে পারেন। দুটি জলযানই মাজাগন ডক শিপবিল্ডার্স তৈরি করছে। তবে আইএনএস ভেলার ডিজাইন করেছে ফরাসি নাভাল গ্রুপ। 

এদিকে নেভি সূত্রে খবর, বিশাখাপত্তনম শ্রেণির মধ্য়ে পড়ে এমন চারটি যুদ্ধজাহাজ যেমন আইএনএস মার্মাগাঁও, ইম্ফল, পোরবন্দরকে আগামী ২০২২ সালের মধ্যেই কার্যকরী করা হবে। সেক্ষেত্রে সব মিলিয়ে আরও শক্তিশালী হবে ভারতের নৌবহর। 

আইএনএস ভেলা ডিজেল-ইলেকট্রিক অ্যাটাক সাবমেরিন বলে পরিচিত। মিসাইল বহন করতেও এটি সিদ্ধহস্ত। অন্যদিকে ভারতীয় নৌবাহিনী সূত্রে খবর, P15B এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে বিশেষ প্রযুক্তি। এই যুদ্ধজাহাজের একটি বড় গুণ হল অত্য়ন্ত নিঃশব্দে হামলা চালাতে সক্ষম এই যুদ্ধজাহাজ। এমনকী প্রযুক্তিগতভাবে এতটাই উন্নত করা হয়েছে বহু ক্ষেত্রে বিপক্ষের রাডারেও ধরা পড়ে না এর নিঃশব্দে পদচারণ। P15B  দুটি মাল্টি রোল হেলিকপ্টারকেও বহন করতে পারে। অন্যদিকে বিশাখাপত্তনম পর্যায়ের যুদ্ধজাহাজের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে একাধিক সেন্সর। কলকাতা শ্রেণির সঙ্গে তাল মিলিয়ে এটিকে প্রযুক্তিগত দিক থেকে উন্নত করা হয়েছে।  

 

বন্ধ করুন