বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ভোটের আগে বিহারে জনতা দল রাষ্ট্রবাদী পার্টির প্রার্থীকে গুলি করে খুন
ভোটের আগে বিহারে রাষ্ট্রবাদী জনতা দলের প্রার্থীকে গুলি করে খুন (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
ভোটের আগে বিহারে রাষ্ট্রবাদী জনতা দলের প্রার্থীকে গুলি করে খুন (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

ভোটের আগে বিহারে জনতা দল রাষ্ট্রবাদী পার্টির প্রার্থীকে গুলি করে খুন

  • দু'জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন এসডিপিও।

অজয় কুমার পান্ডে এবং অবিনাশ কুমার

আর চারদিন পরেই ভোট। তার আগেই বিহারের শেওহরে জনতা দল রাষ্ট্রবাদী পার্টির প্রার্থী নারায়ণ সিংকে গুলি করে খুন করল অজ্ঞাতপরিচয় দুষ্কৃতীরা।

পূর্ণাহিয়া গ্রামে ভোটের প্রচার সেরে শনিবার সন্ধ্যায় ফিরছিলেন প্রাক্তন পঞ্চায়েত প্রধান এবং জেলা বোর্ডের সদস্য। সমর্থক ও দলীয় কর্মীদের সঙ্গে হাথসার গ্রামের কাছে পৌঁছতেই নারায়ণের উপর হামলা চালায় দুষ্কৃতীরা। নওগাঁও গ্রামের বাসিন্দা নারায়ণকে দ্রুত শেওহরের প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে ভালো চিকিৎসার জন্য তাঁকে সীতামাঢ়ি সদর হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ঘণ্টাখানেক পরে সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

সূত্রের খবর, ঘটনাস্থলেই এক আততায়ীকে পিটিয়ে মেরে ফেলেন নারায়ণের সঙ্গীরা। তবে তার দেহ অন্য আততায়ীরা নিয়ে চলে গিয়েছে। ঘটনায় সবমিলিয়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে বলে খবর। সূত্রের দাবি, নারায়ণের সমর্থক সন্তোষ কুমারেরও মৃত্যু হয়েছে।

নারায়ণের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন শেওহরের পুলিশ সুপার সঞ্জয় কুমার। তিনি বলেন, 'উনি আপাতত জামিনে মুক্ত ছিলেন। উনি দাগী আসামি এবং নিজের দলের লোকেরাই তাঁকে গুলি করেছে। যারা ওঁর সমর্থক হিসেবে নির্বাচনী প্রচারে সামিল হয়েছিল। পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে নির্বিচারে গুলি চালানো হয়।' 

ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তবে এলাকার এসডিপিও রাকেশ কুমার আবার সংবাদসংস্থা এএনআইকে জানিয়েছেন, পালানোর সময় দু'জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তদন্ত চলছে। ঘটনায় পাঁচ-ছ'জন জড়িত ছিল।

বন্ধ করুন