বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > JNU Student Clash: পড়ুয়াদের সংঘর্ষ JNU-তে, মুখোশ পরে লাঠি হাতে ঘুরে বেড়াল কারা? দায়ের জোড়া FIR

JNU Student Clash: পড়ুয়াদের সংঘর্ষ JNU-তে, মুখোশ পরে লাঠি হাতে ঘুরে বেড়াল কারা? দায়ের জোড়া FIR

পড়ুয়াদের সংঘর্ষ JNU-তে, মুখোশ পরে লাঠি হাতে ঘুরে বেড়াল কারা? দায়ের জোড়া FIR। (ছনি সৌজন্যে, সোশ্যাল মিডিয়া)

JNU Student Clash: পিটিআইয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, কয়েকজন সূত্র জানিয়েছেন যে বুধবার জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি জন্মদিনের পার্টি থেকে ঝামেলার সূত্রপাত হয়েছিল। তারপর বৃহস্পতিবার নর্মদা হস্টেলের কাছে সংঘর্ষ হয়।

জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়াদের সংঘর্ষের ঘটনায় দুটি পৃথক এফআইআর রুজু করল পুলিশ। ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, দুটি গোষ্ঠীর সংঘর্ষে দু'জন পড়ুয়া আহত হয়েছেন। যদিও বিশ্ববিদ্যালয়ের সূত্র উদ্ধৃত করে সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, আহত হয়েছেন এক পড়ুয়া।

পিটিআইয়ের প্রতিবেদন অনুযায়ী, কয়েকজন সূত্র জানিয়েছেন যে বুধবার একটি জন্মদিনের পার্টি থেকে ঝামেলার সূত্রপাত হয়েছিল। তারপর বৃহস্পতিবার নর্মদা হস্টেলের কাছে সংঘর্ষ হয়। সোশ্যাল মিডিয়ায় একাধিক ভিডিয়ো (সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা) ছড়িয়ে পড়ে। যা জেএনইউ সংঘর্ষের ভিডিয়ো বলে দাবি করা হয়। 

আরও পড়ুন: 'মোদী সমর্থকরা অপহরণ করেছিল, কোনওরকমে বেঁচেছি,' বিস্ফোরক দাবি JNU অধ্যাপকের

তেমনই একটি ভিডিয়োয় দেখা গিয়েছে, ক্যাম্পাসের মধ্যেই লাঠি নিয়ে ছুটছেন কয়েকজন। একটি ভিডিয়োয় আবার মুখ ঢাকা কয়েকজনের লাঠি হাতে দেখা গিয়েছে। আবার একজনের গায়ে দেখা গিয়েছে জেএনইউয়ের সোয়েটশার্ট। পুলিশ জানিয়েছে, জেএনইউয়ের সংঘর্ষের নাম করে যে ভিডিয়োগুলি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে, সেগুলি সত্যতার যাচাই করে দেখা হবে।

আরও পড়ুন: 'লোকে ভাবে আমরা টুকডে টুকডে গ্যাঙ…', রামনবমী সংঘর্ষ নিয়ে মুখ খুললেন JNU উপাচার্য

কোনও রাজনৈতিক গোষ্ঠীর যোগ নেই বিশ্ববদ্যালয় সূত্র এবং পুলিশকে উদ্ধৃত করে পিটিআই জানিয়েছে, পড়ুয়াদের সংঘর্ষের ঘটনায় কোনও রাজনৈতিক গোষ্ঠীর যোগ নেই। দিল্লির ডেপুটি পুলিশ কমিশনার (দক্ষিণ-পশ্চিম) মনোজ সি জানিয়েছেন, জেএনইউয়ের পড়ুয়া নিশান্ত নগরের অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩২৩ ধারা, ৩৪১ ধারা এবং ৩৪ ধারায় দায়ের করা হয়েছে। কার্তিক নামে জেএনইউ পড়ুয়ার অভিযোগের ভিত্তিতে দায়ের হয়েছে দ্বিতীয় এফআইআর। যা বসন্তকুঞ্জ নর্থ থানায় সেই মামলা দায়ের করা হয়েছে। আপাতত তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বন্ধ করুন