বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Joe Biden attacks Russia: পরমাণু যুদ্ধ করে জয় আসবে না, পুতিনের হুঁশিয়ারির পরে বার্তা বাইডেনের
জো বাইডেন। (AFP)

Joe Biden attacks Russia: পরমাণু যুদ্ধ করে জয় আসবে না, পুতিনের হুঁশিয়ারির পরে বার্তা বাইডেনের

  • Joe Biden attacks Russia: জো বাইডেন বলেন, ‘রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক গুরুত্বপূর্ণ সদস্য পড়শি দেশে আক্রমণ চালিয়েছে এবং মানচিত্র থেকে একটি সার্বভৌম দেশকে মুছে ফেলার চেষ্টা করেছে। নির্লজ্জের মতো রাষ্ট্রসংঘের সনদের মূল ভিত্তি লঙ্ঘন করেছে রাশিয়া।’

নির্লজ্জের মতো রাষ্ট্রসংঘের চার্টার অর্থাৎ সনদের মূল ভিত্তি লঙ্ঘন করেছে রাশিয়া। রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভার অধিবেশনে এমনই মন্তব্য করলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি জো বাইডেন। তাঁর অভিযোগ, মানচিত্র থেকে একটি সার্বভৌম দেশকে মুছে দেওয়ার চেষ্টা করেছিলেন ভ্লাদিমির পুতিনরা।

বুধবার নিউ ইয়র্কে রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভার বার্ষিক অধিবেশনে চাঁচাছোলা ভাষায় বাইডেন বলেন, ‘রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের এক গুরুত্বপূর্ণ সদস্য পড়শি দেশে আক্রমণ চালিয়েছে এবং মানচিত্র থেকে একটি সার্বভৌম দেশকে মুছে ফেলার চেষ্টা করেছে। নির্লজ্জের মতো রাষ্ট্রসংঘের সনদের মূল ভিত্তি লঙ্ঘন করেছে রাশিয়া।’ তিনি আরও দাবি করেন, স্বতন্ত্র 'দেশ হিসেবে ইউক্রেনের অধিকার হরণের' লক্ষ্য ছিল মস্কোর। সেই লক্ষ্যপূরণের জন্যই ইউক্রেনের স্কুল, রেলওয়ে স্টেশন, হাসপাতালে হামলা চালিয়েছে রাশিয়ার বাহিনী।

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউক্রেনে হামলা চালায় রাশিয়া। রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ চলে। মৃত্যু হয় প্রচুর মানুষ। আহত হন অনেকে। ধ্বংস হয়ে গিয়েছে স্থাপত্য, স্কুল, হাসপাতাল, বাড়ি, বাজার। সেই হামলার জেরে পশ্চিমী দুনিয়া-সহ বিশ্বের অসংখ্য দেশের সমালোচনার মুখে পড়েছে রাশিয়া। তবে এখনও পিছু হটেনি মস্কো। বরং সংঘাত অব্যাহত আছে। সেই পরিস্থিতিতে বুধবার বাইডেন বলেন, 'একটি পরমাণু যুদ্ধ জেতা সম্ভব নয় এবং কখনও সেই যুদ্ধ করা উচিত নয়। (কিন্তু) আমরা উদ্বেগজনক প্রবণতা দেখছি। পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করবে বলে দায়িত্বজ্ঞানহীনভাবে হুমকি দিচ্ছে।'

প্রসঙ্গত, বিগত কিছুদিন ধরেই অনেকটা খেলা ঘুরেছে। যেসব জায়গা রাশিয়ার সেনা দখল করে নিয়েছিল, সেখানে ধীরে ধীরে জমি শক্ত করছে ইউক্রেন। বেশ কিছু বড় শহরও ফের চলে গিয়েছে ইউক্রেনের হাতে। স্বভাবতই অস্বস্তিতে পড়ছে রাশিয়া। ইতিমধ্যেই তাদের সরকারি হিসেবমতো, প্রায় ছয় হাজার রুশ সেনা এই যুদ্ধে নিহত হয়েছেন। 

এদিন পুতিন বলেন রাষ্ট্রের সার্বভৌমত্ব যখন প্রশ্নের মুখে পড়ে, তখন যাবতীয় শক্তি দিয়ে রাশিয়ার মানুষকে রক্ষা করতেই হবে। যারা পরমাণু বোমা আছে বলে ব্ল্যাকমেল করছেন, তাদের জেনে রাখা দরকার হাওয়া উলটো দিকেও ঘুরতে পারে, বলে হুঁশিয়ারি দেন রাশিয়ার রাষ্ট্রপতি। পশ্চিমের দেশগুলি ইউক্রেনকে সমর্থন করে রাশিয়ার ক্ষতি করছে বলে তিনি দাবি করেন। যেসব মানুষ ইউক্রেনে নিজেদের ভবিষ্যত নিজেরা ঠিক করতে চান, তাদের রাশিয়া সমর্থন করবে বলেও জানান তিনি। প্রসঙ্গত, বিভিন্ন রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণে থাকা অঞ্চলে গণভোটের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, সেনাবাহিনীতে রিজার্ভে যারা আছেন, তেমন তিন লাখ জওয়ানকে ডেকে পাঠানো হচ্ছে যাতে প্রয়োজনে তাদের কাজে লাগানো যায়। সবমিলিয়ে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠছে ইউক্রেন যুদ্ধ এবং রাশিয়া যদি কোনও চরম পন্থা নেয় আমেরিকা যে নিশ্চুপ থাকবে না, এদিন তার ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে স্পষ্টভাবে। 

বন্ধ করুন