অর্ণব গোস্বামী (ছবি সৌজন্য এএনআই)
অর্ণব গোস্বামী (ছবি সৌজন্য এএনআই)

সাংবাদিকতার অধিকার হল বাকস্বাধীনতার গোড়ার কথা- অর্ণবকে সাময়িক স্বস্তি দিল সুপ্রিম কোর্ট

তিন সপ্তাহের জন্য গ্রেফতার করা যাবে না অর্ণব গোস্বামীকে। 

বাকস্বাধীনতার একেবারে মূলে আছে সাংবাদিকতার অধিকার, বলে জানাল সুপ্রিম কোর্ট। যতদিন সাংবাদিকরা কোনও ভয় ছাড়া সত্যিটা পরিবেশন করবেন, ততদিন ভারত স্বাধীন থাকবে বলে মনে করে শীর্ষ আদালত। সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীর দায়ের করা দুটি পিটিশনের শুনানির সময় এই মন্তব্য করে শীর্ষ আদালত। 

অর্ণবের বিরুদ্ধে মুম্বই পুলিশের দায়ের করা এফআইআর নাকচ করতে রাজি হল না সুপ্রিম কোর্ট। তবে অন্য ১৪টি এফআইআর খারিজ করল আদালত। তিন সপ্তাহের জন্য তাঁকে গ্রেফতার করা যাবে না বলে জানায় শীর্ষ আদালত। তবে এই মামলা সিবিআইয়ের কাছে দিতে অস্বীকার করে সুপ্রিম কোর্ট। 

এদিন ডিওয়াই চন্দ্রচূড় ও এমআর শাহের বেঞ্চ বলে একটি ঘটনায় অনেকগুলি ক্রিমিনাল কেস সাংবাদিকের বিরুদ্ধে দায়ের করা যায় না। সংবিধানের ১৯ (১এ) ধারার একেবারে গোড়ায় রয়েছে সাংবাদিকদের স্বাধীনতা। সংবিধানের এই ধারা বাকপ্রকাশের স্বাধীনতাকে রক্ষা করে। অর্ণবের টিভি শো-তে যা বলে, সেটাও এই ধারার অন্তর্ভুক্ত বলে জানায় সুপ্রিম কোর্ট। 

তবে এই ধারায় যে কিছু ব্যতিক্রম আছে, সেটাও মনে করিয়ে দেয় আদালত। তবে একজন সাংবিকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন জায়গায় এফআইআর করা বাকস্বাধীনতাকে কণ্ঠরোধ করা বলে জানান বিচারপতি চন্দ্রচূড়।

অর্ণবের বিরুদ্ধে পালঘরে সাধু হত্যার কভারেজের সময় সাম্প্রদায়িক ঘৃণা ছড়ানোর অভিযোগ উঠেছে। একই সঙ্গে তিনি সোনিয়া গান্ধীর মানহানি করেছেন, এই অভিযোগও উঠেছে। অন্যদিকে অর্ণবের দাবি, কংগ্রেসের কিছু সমর্থক তাঁকে আক্রমণ করেন। এই সব মামলার তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশ। কিন্তু লাগাতার অর্ণব ও তাঁর চ্যানেলের বরিষ্ঠ কর্তাদের ডেকে প্রশ্ন করছে পুলিশ। সেই কারণেই মামলাটি সিবিআইয়ের হাতে যাক, সেটা চাইছিলেন তিনি। কিন্তু সেই আবেদন খারিজ করে দিল সুপ্রিম কোর্ট।

বন্ধ করুন