বিজেপির সদর দপ্তরে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া (ছবি সৌজন্য এএনআই)
বিজেপির সদর দপ্তরে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া (ছবি সৌজন্য এএনআই)

যোগদানের পরই মধ্যপ্রদেশ থেকে রাজ্যসভায় জ্যোতিরাদিত্যকে প্রার্থী করল BJP

  • রাজনৈতিক মহলের মতে, মধ্যপ্রদেশে অনায়াসে জিতবেন জ্যোতিরাদিত্য। আর তারপরই মধ্যপ্রদেশ দখলে ঝাঁপাবে বিজেপি।

শুধু আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার অপেক্ষা ছিল। তারপরই সরকারিভাবে ঘোষণা করা হল, মধ্যপ্রদেশ থেকে রাজ্যসভায় বিজেপির প্রার্থী হচ্ছেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া।

আরও পড়ুন : বিজেপিতে যোগ দিলেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া, ফের গেরুয়া হওয়ার পথে মধ্যপ্রদেশ

দীর্ঘদিন ধরেই দলের বিরুদ্ধে ফোঁস করছিলেন জ্যোতিরাদিত্য। ক্রমশ চওড়া হচ্ছিল ফাটলটা। মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী কমল নাথের অস্বস্তি বাড়াচ্ছিলেন। অবশেষে সরকারিভাবে কংগ্রেস থেকে ইস্তফা দেন মাধবরাও সিন্ধিয়ার ছেলে। তার আগেই নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে বৈঠক সারেন তিনি। ফলে বিজেপিতে যোগ দেওয়া স্রেফ সময়ের অপেক্ষা ছিল। এদিন দুপুর আড়াইটে নাগাদ আসে সেই মাহেন্দ্রক্ষণ। সরকারিভাবে বিজেপিতে যোগ দেন জ্যোতিরাদিত্য। তারপর সাংবাদিক বৈঠকে বলেন, '২০১৮ সালে কংগ্রেস যখন মধ্যপ্রদেশে সরকার গঠন করল, তখন আমার একটা স্বপ্ন ছিল। কিন্তু ১৮ মাস পরে কৃষক-সহ কোনও প্রতিশ্রুতিই পূরণ হয়নি।' পাশাপাশি কমল নাথ সরকারের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগও তোলেন তিনি।

আরও পড়ুন : জ্যোতিরাদিত্যকে দলে আনার নেপথ্যে মূল ভূমিকা নিলেন বিজেপির জাফর ইসলাম

মধ্যপ্রদেশের কংগ্রেস সরকারকে সেইসব অভিযোগ বাণে বিদ্ধ করার মেরেকেটে ঘণ্টাতিনেক পরেই সিন্ধিয়া বংশের প্রতিনিধিকে রাজ্যসভার প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করে বিজেপি। একটি তালিকা প্রকাশ করে জানানো হয়, মোদীর উপস্থিতিতে জাতীয় নির্বাচন কমিটির বৈঠকে সিন্ধিয়ার নামে সিলমোহর দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন : মধ্যপ্রদেশ সংকট- ইস্তফার হিড়িক, জ্যোতিরাদিত্যের পর কংগ্রেস ছাড়লেন ২২ বিধায়ক

উল্লেখ্য, আগামী ২৬ মার্চ রাজ্যসভার নির্বাচন হবে। সেজন্য আগামী শুক্রবার পর্যন্ত মনোনয়ন জমা দেওয়া যাবে। মধ্যপ্রদেশের তিনটি আসন পূরণের জন্য এই নির্বাচন হচ্ছে। রাজনৈতিক মহলের মতে, মধ্যপ্রদেশে অনায়াসে জিতবেন জ্যোতিরাদিত্য। আর তারপরই হিন্দি বলয়ের অন্যতম রাজ্য দখলে পূর্ণশক্তিতে ঝাঁপাবে বিজেপি।

বন্ধ করুন