বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Kabul Gurudwara Attack: 'নূপুরের মন্তব্যের প্রতিশোধ', কাবুলের গুরুদ্বারে হামলা চালিয়ে দায় স্বীকার IS-এর
শিখদের গুরুদ্বারে হামলায় মৃত্যু দুই জনের।  (REUTERS)

Kabul Gurudwara Attack: 'নূপুরের মন্তব্যের প্রতিশোধ', কাবুলের গুরুদ্বারে হামলা চালিয়ে দায় স্বীকার IS-এর

  • Kabul Gurudwara Attack: হজরত মহম্মদকে নিয়ে নূপুরশ শর্মার বিতর্কিত মন্তব্যের ঘটনায় হিন্দুদের উপর হামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছিল ইসলামিক স্টেট খোরাসান। সম্প্রতি এই বিতর্কের প্রেক্ষিতে ইসলামিক স্টেট খোরাসান ভারতকে নিয়ে ১০ মিনিটের একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করে।

শনিবার আফগান রাজধানী কাবুলে অবস্থিত এক গুরুদ্বারে হামলা চালিয়েছিল জঙ্গিরা। সেই হামলার দায় স্বীকার করল আইএসআইএস জঙ্গি সংগঠন। জঙ্গি সংগঠনের তরফে বলা হয়েছে, নবি হজরত মহম্মদকে 'অপমান' করার প্রতিশোধ হিসেবে এই হামলা চালানো হয়। এর আগে হজরত মহম্মদকে নিয়ে নূপুরশ শর্মার বিতর্কিত মন্তব্যের ঘটনায় উত্তাল হয় ভারত। হিংসা ছড়ায় পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ সহ একাধিক রাজ্যে। বিজেপির সাসপেন্ডেড নেত্রীর মন্তব্যের প্রেক্ষিতে এরপরই 'প্রতিশোধে'র হুঁশিয়ারি দিয়েছিল আইএস খোরাসান।

উল্লেখ্য, হজরত মহম্মদকে নিয়ে নূপুরশ শর্মার বিতর্কিত মন্তব্যের ঘটনায় হিন্দুদের উপর হামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছিল ইসলামিক স্টেট খোরাসান। সম্প্রতি এই বিতর্কের প্রেক্ষিতে ইসলামিক স্টেট খোরাসান ভারতকে নিয়ে ১০ মিনিটের একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করে। ভিডিয়োতে নূপুর শর্মার অবমাননাকর মন্তব্যের বিষয়টি তুলে ধরা হয়। পাশাপাশি দিল্লির জাহাঙ্গিরপুরীতে বুলডোজার চালানোর ঘটনাও স্থান পায় জঙ্গি সংগঠনের ভিডিয়োটিতে। সন্ত্রাসী সংগঠনটি নবির অপমানের প্রতিশোধ নিতে হিন্দুদের উপর হামলার হুমকি দেয়। ভিডিয়োতে ইসলামিক স্টেট তালিবানেরও সমালোচনা করেছিল।

এই আবহে শনিবার সকালে ইসলামিক স্টেট সন্ত্রাসীরা হামলা চালায় কার্তে পারওয়ান গুরুদ্বারে। হামলায় এক নিরাপত্তারক্ষী এবং এক গ্রন্থীর মৃত্যু হয়। জানা গিয়েছে, জঙ্গিরা যখন গুরুদ্বারে হামলা চালায় তখন সেই সময় গুরুদ্বারের ভিতর ২৫ থেকে ৩০ জন শিখ এবং হিন্দু ছিলেন প্রার্থনার জন্য। হামলার পর সেখান থেকে কয়েকজন পালাতে সম্মত হন। তবে অনেকেই আটকে থাকেন সেখানেই। জানা গিয়েছে, হামলায় তিন তালিবান যোদ্ধা জখম হয়। প্রসঙ্গত, এর আগেও ভারত কার্তে পারওয়ান গুরুদ্বারের শিখদের আফগানিস্তান থেকে উদ্ধার করার প্রস্তাব দিয়েছিল। তবে শিখরা আফগানিস্তান ছেড়ে আসতে সম্মত হননি।

বন্ধ করুন