বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Kala Azar: করোনার মধ্যেই রাজ্যের ১১ জেলায় কালাজ্বর, কী বলছে স্বাস্থ্য দফতর!
কালাজ্বর নিয়ে উদ্বেগের কিছু নেই, জানাল স্বাস্থ্য দফতর। (এই ছবির সঙ্গে কালাজ্বরের কোনও সম্পর্ক নেই। প্রতীকী ছবি)। 

Kala Azar: করোনার মধ্যেই রাজ্যের ১১ জেলায় কালাজ্বর, কী বলছে স্বাস্থ্য দফতর!

  • স্বাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, কালাজ্বরের আক্রান্তদের কমানোর জন্য় নজরদারির সময় এই রোগীদের সন্ধান মিলেছে। ১১টি জেলায় এই কালাজ্বরের রোগীর সন্ধান মিলেছে। তবে এর আগেও সেখানে রোগী দেখা গিয়েছিল। কিন্তু কালাজ্বর ছড়িয়ে গিয়েছে, বা প্রকোপ দেখা গিয়েছে এমনটা একেবারেই নয়।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে পশ্চিমবঙ্গের অন্তত ১১টি জেলায় ৬৫জন কালাজ্বরে আক্রান্ত বলে জানা গিয়েছে। করোনার গ্রাফ যখন উর্ধমুখী তখন কালাজ্বরকে কেন্দ্র করে নতুন করে উদ্বেগ ছড়াতে শুরু করেছে বাংলায়। তবে স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা জানিয়ে দিয়েছেন, এটা নিয়ে আতঙ্কের কিছু নেই।

রাজ্যের ডিরেক্টর অফ হেলথ সার্ভিস সিদ্ধার্থ নিয়োগী জানিয়েছেন, কালাজ্বর এই রাজ্য থেকে চলে গিয়েছিল। কেন্দ্রীয় সরকার লক্ষ্যমাত্রা দিয়েছিল ১০ হাজার জনসংখ্যার মধ্যে যেন ১জনের বেশি কালাজ্বরের রোগী কোনও ব্লকে না থাকে। পশ্চিমবঙ্গে আমরা এনিয়ে যথেষ্ট সাফল্য পেয়েছি। কোথাও কোনও কালাজ্বরের প্রকোপ নেই। এনিয়ে উদ্বেগের কোনও কারণ নেই।

বালিমাছির মাধ্যমে সাধারণত এই কালাজ্বর ছড়ায়। ভারতে মূলত বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, উত্তরপ্রদেশ ও ঝাড়খণ্ডের ৫৪টি জেলায় এই কালাজ্বরের রোগীর সন্ধান মেলে। পশ্চিমবঙ্গে মূলত দার্জিলিং, মালদা, দুই দিনাজপুর ও কালিম্পংয়ে এই রোগীর সন্ধান মেলে।

স্বাস্থ্য দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, কালাজ্বরের আক্রান্তদের কমানোর জন্য় নজরদারির সময় এই রোগীদের সন্ধান মিলেছে। ১১টি জেলায় এই কালাজ্বরের রোগীর সন্ধান মিলেছে। তবে এর আগেও সেখানে রোগী দেখা গিয়েছিল। কিন্তু কালাজ্বর ছড়িয়ে গিয়েছে, বা প্রকোপ দেখা গিয়েছে এমনটা একেবারেই নয়। নজরদারির সময় ধরা পড়েছে এটা অত্যন্ত আশার কথা। এই সংখ্যা কমানো হবে।

বন্ধ করুন