বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Kalboishakhi Jhor 2022: ঘণ্টায় ৭০ কিমি বেগে তাণ্ডব কালবৈশাখীর, শিলাবৃষ্টি হল ঢাকায়
ঢাকায় বুধবার সকাল শুরু হয় কালবৈশাখী আর বজ্র-সহ শিলাবৃষ্টি নিয়ে৷ (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে পিটিআই)

Kalboishakhi Jhor 2022: ঘণ্টায় ৭০ কিমি বেগে তাণ্ডব কালবৈশাখীর, শিলাবৃষ্টি হল ঢাকায়

  • দিনকয়েক ধরে প্রবল গরমে হাসফাঁস অবস্থা হয়েছিল ঢাকা-সহ বাংলাদেশের। বুধবার কিছুটা মিলল রেহাই। চলতি মরশুমের প্রথম কালবৈশাখীর দেখা পেল ঢাকা। প্রাথমিকভাবে ঝোড়ো বাতাসের সঙ্গে শুরু হয় বজ্রপাত। তারপর হয় শিলাবৃষ্টি৷

ঢাকায় বুধবার সকাল শুরু হয় কালবৈশাখী আর বজ্র-সহ শিলাবৃষ্টি নিয়ে৷ গত কয়েকদিন ধরে দেশের কয়েকটি এলাকায় ছিল মৃদু তাপপ্রবাহ, ঢাকাতেও ছিল দমবন্ধ গরম৷ সকালের বৃষ্টিতে স্বস্তি এনেছে খানিকটা৷

আবহাওয়া অফিসের পূর্বাভাসে বৃষ্টির কথা বলা হয়েছিল৷ রাজধানীতে সকাল সাড়ে ৬টার দিকে মেঘাচ্ছন্ন হয়ে আসে ঢাকার আকাশ৷ পৌনে ৭টার দিকে ঝোড়ো বাতাসের সঙ্গে শুরু হয় বজ্রপাত, এরপর শিলাবৃষ্টি৷ তবে বাতাস আর বৃষ্টির দাপট ঘণ্টাখানেকের বেশি স্থায়ী হয়নি৷

আরও পড়ুন: বৈশাখে কলকাতায় কেন দেখা নেই কালবৈশাখীর, জানেন কি কারণগুলো?

ডয়চে ভেলের কনটেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে আবহাওয়াবিদ ড. আবুল কালাম মল্লিক জানান, ঢাকায় ঝড়ের সময় বিমানবন্দর আবহাওয়া স্টেশনে ঘণ্টায় ৭০ কিলোমিটার পর্যন্ত বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ রেকর্ড করা হয়৷ আর আগারগাঁও এলাকায় বাতাসের গতি উঠেছিল ৫৫ কিলোমিটার পর্যন্ত৷ ওই সময়টায় ঢাকায় ৪৪ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে৷

সকালের কালবৈশাখী ঝড়ে ঢাকায় বড় ধরনের ক্ষয়ক্ষতির কোনও তথ্য আসেনি ফায়ার সার্ভিস নিয়ন্ত্রণ কক্ষে৷ ডিউটি অফিসার লিমা খানম জানান, চন্দ্রিমা উদ্যান এলাকায় ঝড়ে গাছ পড়ে গিয়েছে৷ কয়েকটি জায়গায় বিদ্যুৎ বিচ্ছিন্ন হওয়ার তথ্য এসেছিল, পরে তা স্বাভাবিক হয়ে গিয়েছে৷

রাত সাড়ে ৩টার দিকে রংপুরে কালবৈশাখী ও বজ্রঝড় হয়৷ সেখানে বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৭৮ কিলোমিটার৷ এছাড়া দেশের বিভিন্ন এলাকায় কালবৈশাখী বয়ে গিয়েছে রাত থেকে ভোরের মধ্যে৷ আবুল কালাম মল্লিক বলেন, ‘এ মরশুমে দিনের শেষভাগে কালবৈশেখী হয়ে থাকে৷ অস্থায়ী দমকা হাওয়া-সহ বৃষ্টি ও বজ্রবৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে৷’

বুধবার সকালে ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও চট্টগ্রাম বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা বা ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে প্রবল বজ্রপাত-সহ বৃষ্টি হতে পারে৷ সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলাবৃষ্টি হতে পারে৷

রাজশাহী, পাবনা, যশোর ও রাঙামাটি অঞ্চলের ওপর দিয়ে যে মৃদু তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে, বুধবার তা প্রশমিত হতে পারে বলে আশা দিয়েছে আবহাওয়া অফিস৷ পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে৷

আরও পড়ুন: Rain Forecast: বাংলার কাছেই ঘূর্ণাবর্ত, আজ থেকে বৃষ্টিতে ভিজবে দক্ষিণবঙ্গের এই জেলাগুলি

দেশের নদীবন্দরগুলির জন্য সতর্কবার্তায় বলা হয়েছে, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, কুমিল্লা, নোয়াখালী, চট্টগ্রাম ও সিলেট অঞ্চলের ওপর দিয়ে পশ্চিম উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে৷ এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলেছে আবহাওয়া অফিস৷

এছাড়া দেশের অন্যান্য এলাকায় পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টি-সহ দমকা বা ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে৷ এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে৷

(বিশেষ দ্রষ্টব্য : প্রতিবেদনটি ডয়চে ভেলে থেকে নেওয়া হয়েছে। সেই প্রতিবেদনই তুলে ধরা হয়েছে। হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার কোনও প্রতিনিধি এই প্রতিবেদন লেখেননি।)

বন্ধ করুন