বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Bengaluru waterlogging woes- 'IT সংস্থারাই তো জল বেরনোর ড্রেন বন্ধ করে বিল্ডিং বানিয়েছে, তাই এই অবস্থা'
ফাইল ছবি: পিটিআই (PTI)

Bengaluru waterlogging woes- 'IT সংস্থারাই তো জল বেরনোর ড্রেন বন্ধ করে বিল্ডিং বানিয়েছে, তাই এই অবস্থা'

  • কর্ণাটকের রাজস্ব মন্ত্রীর অভিযোগ, ৩০টিরও বেশি আইটি কোম্পানি আপদকালীর জলনিকাশী নালার স্থান দখল করে রেখেছে। এর ফলে অতিবৃষ্টির সময় ব্যবস্থা থাকা সত্ত্বেও জল সেখানে গিয়ে আটকে যাচ্ছে।

এত আওয়াজ তুলছেন। এদিকে ওঁরা নিজেরাই তো ঠিক কাজ করছেন না। ব্যাঙ্গালুরুর আইটি সংস্থাদের একাংশের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ তুললেন কর্ণাটকের রাজস্ব মন্ত্রী আর অশোকা। কেন এমনটা বললেন তিনি?

সম্প্রতি ব্যাঙ্গালুরুর আউটার রিঙ রোড বৃষ্টির জলে প্রায় অচল হয়ে যায়। এর ফলে কাজে পৌঁছতে পারছিলেন না আইটি কর্মীরা। ৩০ অগস্ট মাত্র ১ দিনেই ২২৫ কোটি টাকার লোকসানের অভিযোগ তোলে আইটি সংস্থাদের সংগঠন। এ বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ বোম্মাইকে চিঠি দেন তাঁরা। মুখ্যমন্ত্রী বিষয়টি পর্যালোচনা ও ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দেন।

এদিকে জল জমার কারণ খতিয়ে দেখতে গিয়েই হয় বিপত্তি। কেঁচো খুড়তে কেউটে বেরিয়ে আসে। কর্ণাটকের রাজস্ব মন্ত্রীর অভিযোগ, ৩০টিরও বেশি আইটি কোম্পানি আপদকালীর জলনিকাশী নালার স্থান দখল করে রেখেছে। এর ফলে অতিবৃষ্টির সময় ব্যবস্থা থাকা সত্ত্বেও জল সেখানে গিয়ে আটকে যাচ্ছে।

আমরা আমাদের আধিকারিকদের এমন সব দখলদারি ভেঙে ফেলতে বলেছি, সেটা ধনী কারও হোক বা দরিদ্র। ৩০টিরও বেশি আইটি সংস্থা স্টর্ম ওয়াটার ড্রেনের স্থান দখল করে রেখেছে। এদিকে তারাই বড় বড় কথা বলছিল। তাদের মধ্যেই অনেক সংস্থা ও বিল্ডার এই এলাকাগুলি দখল করে রেখেছে। আমরা কাউকে এক ফোঁটা ছাড় দেব না, কাউকে সময় দেওয়ার প্রশ্নই আসে না, বিধানসভায় জানান তিনি।

এদিকে মহাদেবপুরার বিধায়ক এবং রাজস্ব মন্ত্রীর দলীয় সহকর্মী অরবিন্দ লিম্বাভাল্লি মন্ত্রীর এই দাবি খারিজ করে দেন। তিনি বলেন, 'আর অশোক যা বলেছেন তা ভুল, আইটি সংস্থাগুলি কোনও ভুল করেনি। আসলে নির্মাণকারীরা এই এলাকাগুলি দখল করে বিল্ডিং তৈরি করেছে। সেই সম্পত্তি আইটি সংস্থাগুলিকে ভাড়া দেওয়া হয়েছে।'

বন্ধ করুন