বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Kashmir: স্বাধীনতার সাত দশক পর বিদ্যুৎ পেল কাশ্মীরের প্রত্যন্ত এলাকা, খুশি গ্রামবাসীরা

Kashmir: স্বাধীনতার সাত দশক পর বিদ্যুৎ পেল কাশ্মীরের প্রত্যন্ত এলাকা, খুশি গ্রামবাসীরা

দীর্ঘ বছর পর বিদ্যুৎ পেল কাশ্মীরের একটি প্রত্যন্ত গ্রাম। প্রতীকী ছবি

ফলে সেখানে অন্ধকার নামলেই অন্যান্য উপায়ে বাড়ি আলোকিত রাখতেন স্থানীয়রা। আলোর উৎস হিসেবে বাতি এবং মোমবাতি জ্বলত বাড়িতে বাড়িতে। বাসিন্দারা রবিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ জানিয়েছেন মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণের জন্য কাজ করার জন্য। 

স্বাধীনতার প্রায় প্রায় ৭৫ বছর পর বিদ্যুৎ পেলেন দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্ত নাগ জেলার ডোরু ব্লকের একটি প্রত্যন্ত গ্রাম তেথানের বাসিন্দারা। কেন্দ্রের প্রধানমন্ত্রী উন্নয়ন প্যাকেজ প্রকল্পের অধীনে প্রায় ৭৫ বছর পর এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ হয়েছে। ওই গ্রামের লোক সংখ্যা আনুমানিক ২০০ জন। বিদ্যুৎ সরবরাহ হওয়ার ফলে প্রথমবার বাল্ব জানিয়ে আনন্দ উপভোগ করেন গ্রামের বাসিন্দারা।

এতদিন এলাকায় কোনও বিদ্যুৎ সরবরাহ ছিল না। ফলে সেখানে অন্ধকার নামলেই অন্যান্য উপায়ে বাড়ি আলোকিত রাখতেন স্থানীয়রা। আলোর উৎস হিসেবে বাতি এবং মোমবাতি জ্বলত বাড়িতে বাড়িতে। বাসিন্দারা রবিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ জানিয়েছেন মানুষের মৌলিক চাহিদা পূরণের জন্য কাজ করার জন্য। গ্রামের বাসিন্দা ফজুল উদ্দিন খান জানান, ‘আমরা আজ প্রথমবারের মতো বিদ্যুৎ দেখেছি। আমাদের ছেলেমেয়েরা এখন বিদ্যুতের আলোতে লেখাপড়া করবে।'

খানের মতে, গ্রামবাসীরা কয়েক দশক ধরে ক্ষমতা না থাকার কারণে প্রচুর সমস্যার মুখোমুখি হয়েছে। তিনি জানান, ‘এখন পর্যন্ত আমরা আমাদের শক্তির প্রয়োজনের জন্য ঐতিহ্যবাহী কাঠের উপর নির্ভর করতাম। আমাদের সমস্যা এখন সমাধান করা হয়েছে। বিদ্যুৎ সরবরাহের জন্য আমরা সরকার ও সংশ্লিষ্ট বিভাগের কাছে কৃতজ্ঞ।’

জাফর খান নামে আর এক বাসিন্দা বলেন, ‘আজ আমরা ভাগ্যবান যে সরকার বিদ্যুৎ সরবরাহ করেছে।’ বিদ্যুৎ দফতরের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ‘ওই গ্রামে দ্রুত বিদ্যুৎ আনা হয়েছে। এরজন্য কাজ শুরু হয়েছিল ২০২২ সালে। আমরা এখানে একটি ৬৩ কিলো ভোল্টের ট্রান্সফরমার লাগিয়েছি।’

বন্ধ করুন