আমন্ত্রিতদের তালিকা থেকে শেষমুহূর্তে বাদ কেজরকি-সিসোদিয়া (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)
আমন্ত্রিতদের তালিকা থেকে শেষমুহূর্তে বাদ কেজরকি-সিসোদিয়া (ফাইল ছবি, সৌজন্য এএনআই)

'কেন্দ্রের চাপে' মেলানিয়ার স্কুল সফরে শেষমুহূর্তে বাদ কেজরিওয়াল-সিসোদিয়া

  • স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ মিটতেই সংঘাতের আবহ তৈরি হল? তা নিয়ে জোর চর্চা রাজনৈতিক মহলে।

ভারত সফরে এসে দিল্লির একটি সরকারি স্কুলে যাবেন আমেরিকার ফার্স্ট লেডি মেলানিয়া ট্রাম্প। সেখানে ট্রাম্প পত্নীকে অভ্যর্থনা জানানোর জন্য উপস্থিত থাকার কথা ছিল দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল ও মণীশ সিসোদিয়ার। কিন্তু 'কেন্দ্রের চাপে' শেষমুহূর্তে তাঁদের নাম আমন্ত্রিতদের তালিকা থেকে বাদ পড়েছে। এমনই দাবি করলেন দিল্লি প্রশাসনের আধিকারিকরা।

আরও পড়ুন : ভারত সফরে ধর্মীয় স্বাধীনতার বিষয়টি তুলবেন ট্রাম্প, জানালেন মার্কিন আধিকারিক

তাঁরা জানান, শনিবার সকালে মুখ্যমন্ত্রীর অফিসে জানানো হয় যে, স্কুলে কারা উপস্থিত থাকবেন তা নিয়ে যে তালিকা বানানো হয়েছে তা থেকে কেজরিওয়াল ও সিসোদিয়ার নাম বাদ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন : লক্ষাধিক মানুষ ট্রাম্পকে স্বাগত জানাবেন, বললেন গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী রুপানি

আপের প্রথমসারির নেতারাও জানান, ফার্স্ট লেডির স্কুল সফরে থাকছেন না কেজরিওয়াল ও সিসোদিয়া। অথচ এদিন সকালেই সিসোদিয়া জানান, মেলানিয়া আসবেন বলে দিল্লির কয়েকটি সরকারি স্কুলে প্রস্তুতি চলছে। তিনি বলেন 'বিদেশ মন্ত্রকের নির্দেশ মতো সব প্রস্তুতি চলছে। মেলানিয়া আসবেন বলে কয়েকটি স্কুলে প্রস্তুতি চলছে। তবে নিরাপত্তাজনিত কারণে এর থেকে বেশি কিছু বলতে পারব না।'

আরও পড়ুন : ট্রাম্পের যাত্রাপথে ঝুপড়ি, দেওয়াল দিয়ে ঢাকছে গুজরাত সরকার

তাহলে আচমকা এমন কী হল যে সরকারের আমলে প্রকল্প চালু হয়েছিল, সেই সরকারের মুখ্যমন্ত্রীই আমন্ত্রিত তালিকা থেকে বাদ পড়লেন? এনিয়ে নাম গোপন রাখার শর্তে এক আধিকারিক বলেন, 'এটা অত্যন্ত অদ্ভুত বিষয় যে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীকে আমন্ত্রিতদের তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তাও কিনা ২০১৮ সালে দিল্লি সরকার যে হ্যাপিনেস ক্লাস চালু করেছিল, তা নিয়েই পুরো অনুষ্ঠান সেটা। ফার্স্ট লেডিকে সেই ক্লাসের প্রভাব কে ব্যাখ্যা করবেন, সে বিষয়ে এখনও আমাদের কিছু জানানো হয়নি। আমরা জানতে পেরেছি, কেন্দ্রের চাপে মুখ্যমন্ত্রী ও উপ-মুখ্যমন্ত্রীর নাম বাদ দেওয়া হয়েছে।'

আরও পড়ুন : মোদী বলেছেন, আমদাবাদে ৫০-৭০ লাখ মানুষ আসবেন অভ্যর্থনা জানাতে, দাবি ট্রাম্পের


যদিও বিজেপির বক্তব্য, এরকম বিষয় নিয়ে নোংরা রাজনীতি বাঞ্চনীয় নয়। বিজেপির মুখপাত্র বলেন, 'এরকম গুরুত্বপূর্ণ অনুষ্ঠানে বাজে রাজনীতি উচিত নয়। কেন্দ্রীয় সরকার সকল ভারতীয়কে প্রতিনিধিত্ব করে। এরকম ক্ষেত্রে রাজনৈতিক বরং বিবেচনা করা কাম্য নয়।' তা শুনে আপ নেতাদের পালটা কটাক্ষ, রাজনীতি কারা করছে আসলে?

বন্ধ করুন