বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > কেরলে ক্ষমতা ধরে রাখতে পাঁচজন মন্ত্রী–সহ ৩৩ বিধায়ককে ছেঁটে ফেলল সিপিআইএম
পিনারাই বিজয়ন
পিনারাই বিজয়ন

কেরলে ক্ষমতা ধরে রাখতে পাঁচজন মন্ত্রী–সহ ৩৩ বিধায়ককে ছেঁটে ফেলল সিপিআইএম

  • সেই কথা মাথায় রেখে ৮৩ আসনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল কেরল সিপিআইএম।

বঙ্গ–সিপিআইএমের মতোই কেরলের দলেও প্রার্থী তালিকা নিয়ে থাকল ব্যাপক চমক। আর তা নিয়ে দলের অন্দরেই জোর সমালোচনার ঝড় উঠেছে। কেরলে এখন ক্ষমতাসীন বাম গণতান্ত্রিক ফ্রন্ট। যার মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। সেখানে ৬ এপ্রিল ভোট। সেই কথা মাথায় রেখে ৮৩ আসনের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা করল কেরল সিপিআইএম। প্রার্থী বাছাইয়ে তালিকা থেকে বাদ পড়লেন ৩৩ বিধায়ক–সহ পাঁচ মন্ত্রী। আর তা নিয়েই জোর চর্চা শুরু হয়ে গিয়েছে দলের অন্দরে। এমনকী সূত্রের খবর, অনেকে দল ছেড়ে বিজেপিতে যেতে চান বলে ঘনিষ্ঠমহলে জানিয়েছেন।

এখানেই শেষ নয়, এই প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই দেখা গিয়েছে, স্বয়ং অর্থমন্ত্রী থমাস ইশাক এবার টিকিট পাচ্ছেন না। জোর দেওয়া হয়েছে তারুণ্যে। দলের অনেকেই এখন প্রশ্ন তুলেছে, পিনারাই বিজয়ন কী তরুণ মুখ?‌ এখানে বহু তরুণ মুখকে জায়গা দেওয়া হযেছে। তার সঙ্গে ১২ জন মহিলা মুখও স্থান পেয়েছে। এই বিষয়ে দলের সম্পাদক এ বিজয়রাঘবন জানান, আবার ক্ষমতায় ফেরাই আমাদের লক্ষ্য। তাই বহু নতুন এবং তরুণ মুখকে জায়গা দেওয়া হয়েছে। যাতে বিরোধী হাওয়া কাজ না করে।

দলীয় সূত্রে খবর, এবার সংগঠনই কেরল নির্বাচনে শাসক সিপিআইএম–এর মূল ফোকাস। দলের বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় টানা দু’‌বার বিধায়ক হয়েছেন এমন কাউকে এবার টিকিট দেওয়া হবে না। এই অঙ্কের সমীকরণেই বাদ পড়েন পাঁচ মন্ত্রী–সহ বহু বিধায়ক। টিকিট পাননি অর্থমন্ত্রী টিএম থমাস, পূর্তমন্ত্রী জি সুধাকরণ, শিক্ষামন্ত্রী প্রফেসর জি রবীন্দ্রনাথ, তথ্য সংস্কৃতি মন্ত্রী একে বালন এবং শিল্পমন্ত্রী ইপি জয়ারাজন। এভাবে জনপ্রিয় প্রার্থীদের বাদ পড়া নিয়েও জোর চর্চা শুরু হয়েছে।

সিপিআইএম যে ৮৫টি আসনে লড়বে তার মধ্যে ৮৩ আসের প্রার্থী ঘোষণা করা হয়েছে। বাকি দুটি আসন— মঞ্চেশওয়ারাম এবং দেবীকুলাম পরে ঘোষণা করা হবে। তবে সম্পাদক বিজয়রাঘবনের স্ত্রী অধ্যাপক আর বিন্দুকে টিকিট দেওয়া হয়েছে। তা নিয়ে অনেকে দলের মধ্যে স্বজনপোষণের অভিযোগ তুলেছেন। কারণ আইনমন্ত্রী একে বালানের স্ত্রী পিকে জামিলাকে টিকিট দেওয়া হয়নি। প্রার্থী তালিকা অনুযায়ী কান্নুরের ধর্মাদাম থেকেই লড়ছেন মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন, স্বাস্থ্য কেকে শৈলজা দাঁড়াচ্ছেন মাট্টানানুর থেকে। টিকিট পেয়েছেন এমবি রাজেশ, ভিকে ভাসাবন এবং কেএন বালাগোপাল। আর বর্তমান বিধায়ক বিনা জর্জ এবং অ্যাডভোকেট ইউ প্রতিভা কে আবারও প্রার্থী হিসেবে বেছে নিয়েছে দল। এখানে কম করে পাঁচজনের বয়স ৩০ বছরের নীচে।

বন্ধ করুন