বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > Kerala: মুখ্যমন্ত্রীর কন্যাই মূল চক্রী, মার্কিন ফার্মে তথ্য পাচার, দাবি স্বপ্নার

Kerala: মুখ্যমন্ত্রীর কন্যাই মূল চক্রী, মার্কিন ফার্মে তথ্য পাচার, দাবি স্বপ্নার

স্বপ্না সুরেশ (ANI Photo) (Satheesh As )

প্রসঙ্গত কোভিড অতিমারির সময় রাজ্যের আইটি বিভাগ মার্কিন সফটওয়্যার কোম্পানি স্প্রিঙ্কলারের সঙ্গে একটি চুক্তি করে। তৃণমূলস্তরে স্বাস্থ্যকর্মীরা যে তথ্য তুলে আনছে সেটা প্রসেসিং করার ব্যাপারে কথা হয়। তবে এই চুক্তিতে টাকার কোনও ব্যাপার ছিল না। তবে বিরোধীদের দাবি, ব্যক্তিগত তথ্য এভাবে দেওয়া ঠিক নয়।

রমেশ বাবু

বিতর্কিত সোনা পাচারকাণ্ড নিয়ে মঙ্গলবার প্রায় ঘণ্টা তিনেক চর্চা চলে কেরল বিধানসভায়। আর তারপরের দিনই বুধবার এনিয়ে ফের মুখ খুললেন এই ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত স্বপ্না সুরেশ।তিনি বলেন, মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই যা বলেছেন বিধানসভা তা পুরো মিথ্যে কথা। এই ডিলের মূল চক্রী হলেন মুখ্যমন্ত্রীর মেয়ে।

স্বপ্না সুরেশ বলেন, প্রথমদিকে তিনি বলতেন আমায় নাকি চেনেন না। পরে মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিক্রিয়া, কনস্যুলেটের আধিকারিকদের নিয়ে তাঁর বাড়িতে আমি অনেকবার গিয়েছি। ২০১৬ থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত আমি কতবার গিয়েছি তাঁর বাড়িতে, তা নিয়ে সিসি ক্যামেরা ফুটেজ প্রকাশ করুক সরকার।

তিনি বলেন, কূটনৈতিক নিয়মের বাইরেও তিনি বহুবার মুখ্যমন্ত্রীর পরিবারের সঙ্গে রুদ্ধদ্বার মিটিং করেছেন।তাঁর পরিবারের জন্য তিনি আমাকে বাধ্য করতেন ওই মিটিংয়ে আসতে।

তাঁর দাবি, মুখ্যমন্ত্রীর কন্যা বীনা বিজয়ন sprinklr dealএর মূল চক্রী। মার্কিন ফার্মেও তিনি তথ্য পাচার করতেন। পরে বিরোধীরা যখন ২০২০ সালে বিষয়টি বড় ইস্যু করে তখন মুখ্যমন্ত্রী মুখ্যসচিব এম শিবশঙ্করকে দায় নিতে বলেন ।

তিনি বলেন শিবশঙ্করও আমাকে বলেছেন যে তাঁকে বলির পাঁঠা করা হয়েছিল।

প্রসঙ্গত কোভিড অতিমারির সময় রাজ্যের আইটি বিভাগ মার্কিন সফটওয়্যার কোম্পানি স্প্রিঙ্কলারের সঙ্গে একটি চুক্তি করে। তৃণমূলস্তরে স্বাস্থ্যকর্মীরা যে তথ্য তুলে আনছে সেটা প্রসেসিং করার ব্যাপারে কথা হয়। তবে এই চুক্তিতে টাকার কোনও ব্যাপার ছিল না। তবে বিরোধীদের দাবি, ব্যক্তিগত তথ্য এভাবে দেওয়া ঠিক নয়। পরে জানা যায় ক্যাবিনেট ও আইন বিভাগের সঙ্গে পরামর্শ না করেই এই চুক্তি করা হয়েছিল।

বন্ধ করুন