বাড়ি > ঘরে বাইরে > Kerala Crash: দুর্ঘটনা নয়, উড়ান নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের মতে 'ঠান্ডা মাথায় খুন'
দুবাই থেকে ফেরা এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস বিমান কেরালার কোঝিকোড় বিমানবন্দরের রানওয়ের সীমা অতিক্রম করে উপত্যকায় পড়ে গেলে এক কো-পাইলট সহ মোট ১৮ জনের মৃত্যু হয়। ছবি: পিটিআই। (PTI)
দুবাই থেকে ফেরা এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস বিমান কেরালার কোঝিকোড় বিমানবন্দরের রানওয়ের সীমা অতিক্রম করে উপত্যকায় পড়ে গেলে এক কো-পাইলট সহ মোট ১৮ জনের মৃত্যু হয়। ছবি: পিটিআই। (PTI)

Kerala Crash: দুর্ঘটনা নয়, উড়ান নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞের মতে 'ঠান্ডা মাথায় খুন'

  • নয় বছর আগেই তিনি কোঝিকোড় বিমানবন্দরের নিরাপত্তাহীনতার বিষয়টি সম্পর্কে সতর্ক করে রিপোর্ট জমা পড়েছিল।

যথাযথ ব্যবস্থা না নিলে কোঝিকোড়ের মতো দুর্ঘটনার সাক্ষী থাকতে পারে পটনা ও জম্মুর বিমানবন্দরগুলিও। হিন্দুস্তান টাইমস-এর সঙ্গে সাক্ষাৎকারে এমনই জানালেন বিমান নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ ক্যাপ্টেন মোহন রঙ্গনাথন।

অসামরিক বিমান মন্ত্রক গঠিত নিরাপত্তা উপদেষ্টা কমিটির সদস্য ক্যাপ্টেন রঙ্গনাথন জানিয়েছেন, নয় বছর আগেই তিনি কোঝিকোড় বিমানবন্দরের নিরাপত্তাহীনতার বিষয়টি সম্পর্কে সতর্ক করে রিপোর্ট জমা দিয়েছিলেন।

অনায়াসে দুর্ঘটনা এড়ানো যেত বলে তাঁর দাবি, ‘সতর্কবাণী উপেক্ষা করা হয়েছে। আমার মতে, কোঝিকোড়ে কোনও দুর্ঘটনা ঘটেনি, খুন করা হয়েছে। তাদের নিজস্ব সমীক্ষাতেও নিরাপত্তা বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছিল।’

রঙ্গনাথনের মতে, কোঝিকোড়ের মতো টেবিলটপ রানওয়েতে স্থানাভাব থাকায় অনেক বেশি সুরক্ষা ব্যবস্থার প্রয়োজন পড়ে। তিনি বলেন, ‘কোঝিকোড়ে রানওয়ের শেষে ৭০ মিটার গভীর খাদ রয়েছে এবং ম্যাঙ্গালোরের ক্ষেত্রে তা ১০০ মিটার গভীর। একবার রানওয়ে অতিক্রম করে গেলে বিমানের বাঁচার কোনও উপায় নেই।’

এর পরেই তিনি পূর্বাভাস দেন, ‘এর পর পটনা অথবা জম্মু বিমানবন্দরে আরও একখানা বড়সড় দুর্ঘটনা ঘটতে চলেছে। এই দুই বিমানবন্দরের এয়াফিল্ড-এই কোনও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেই।’

প্রায় এক দশক আগে অসামরিক বিমান পরিবহণ নিরাপত্তা উপদেষ্টা কাউন্সিল এবং অসামরিক বিমান পরিবহণ সচিবকে রঙ্গনাথন জানিয়েছিলেন যে, বৃষ্টি হলে কোঝিকোড় বিমানবন্দরের ১০ নম্বর রানওয়ে-তে ল্যান্ড করার সময় বিমানের টেলউন্ড পরিস্থিতির কারণে বিপজ্জনক হতে পারে। তাঁর মতে, ওই রানওয়েতে অবতরণকারী প্রতিটি বিমানেরই দুর্ঘটনার প্রবল আশঙ্কা থেকে যায়। 

তিনি জানিয়েছেন, ভারতীয় বিমান চলাচল শর্তাবলীর ১৪ নম্বর ধারায় উল্লিখিত রানওয়ে স্ট্রিপ-এর ন্যূনতম দৈর্ঘ্যের অর্দ্ধেক লম্বা ওই রানওয়ে। গত কয়েক বছর বিমান নিরাপত্তা সংক্রান্ত সমীক্ষা চালানোর সময় বিষয়টি নজরে পড়ে বিমান পরিবহণ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ডিজিসিএ-র। বিষয়টি উল্লেখ করে রঙ্গনাথন তাঁর চিঠিতে প্রশ্ন তুলেছিলেন, এই বিষয়ে ওই রানওয়ে ব্যবহারের উপরে কোনও নিষেধাজ্ঞা আরোপ বা বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে কি না।

রঙ্গনাথনের ভবিষ্যদ্বাণী মিলিয়ে দিয়ে বৃহস্পতিবার রাতে দুবাই থেকে ফেরা কেন্দ্রীয় সরকারের বন্দে ভারত মিশন-এর আওতায় থাকা এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস ফ্লাইট IX ১৩৪৪ কেরালার কোঝিকোড় বিমানবন্দরের রানওয়ের সীমা অতিক্রম করে উপত্যকায় পড়ে গেলে এক কো-পাইলট সহ মোট ১৮ জনের মৃত্যু হয়। 

 

বন্ধ করুন