বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সোনা পাচার কাণ্ডে জড়াল নাম, বদলি কেরালার মুখ্যমন্ত্রীর প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি
এম শিবশংকর (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)
এম শিবশংকর (ফাইল ছবি, সৌজন্য টুইটার)

সোনা পাচার কাণ্ডে জড়াল নাম, বদলি কেরালার মুখ্যমন্ত্রীর প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি

  • সচিবকে বলির পাঁঠা করে মুখ্যমন্ত্রী পার পাবেন না বলে দাবি করেন কংগ্রেস নেতা রমেশ চেন্নিথালা।

সোনা পাচার কাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত হিসেবে তাঁর নাম উঠে এসেছে। এই পরিস্থিতিতে তথ্যপ্রযুক্তি সচিব এম শিবশংকরকে বদলি করল কেরালা সরকার। যিনি মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের প্রিন্সিপাল সেক্রেটারিও।

গত রবিবার সংযুক্ত আরব আমিরশাহি থেকে একটি পণ্যবাহী বিমানের কনসাইমেন্ট থেকে ৩০ কেজি সোনা বাজেয়াপ্ত করে শুল্ক দফতর। যেটি তিররুবন্তপুরমে ওই দেশের দূতাবাসে যাওয়ার কথা ছিল। ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের সবুজ সংকেতের পরই সেই পদক্ষেপ করে শুল্ক দফতর। তারপর থেকেই তথ্যপ্রযুক্তি পরামর্শদাতা স্বপ্না সুরেশ উধাও হয়ে গিয়েছিলেন বলে খবর। যিনি তথ্যপ্রযুক্তি দফতরের অধীনে কেরালা স্টেট ইনফরমেশন টেকনোলজি ইনফ্রাস্ট্রাকচারে অপারেশনাল ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এরইমধ্যে স্বপ্নার চুক্তি বাতিল করে দেয় বাম সরকার। শুল্ক দফতরের তরফে দাবি করা হয়, তিনি সোনা পাচার চক্রের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। 

তারপর মঙ্গলবারই তথ্যপ্রযুক্তি সচিবকে বদলি করা হয়েছে। যে দফতরের মন্ত্রী আবার খোদ বিজয়ন। মঙ্গলবার মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয়ের তরফে একটি সংক্ষিপ্ত বিবৃতিতে বলা হয়, ‘মুখ্যমন্ত্রীর প্রিন্সিপাল সেক্রেটারি এম শিবশংকরকে বদলি করা হচ্ছে এবং তাঁর জায়গায় আসছেন আইএএস পির মহম্মদ।’ 

তবে শিবশংকের আগেও বিতর্কে জড়িয়েছেন। স্প্রিঙ্কলার বিতর্কে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছিল। কিন্তু সেই সময় তাঁকে সরকারের তরফ থেকে সাহায্য করা হয়েছিল। সরকারেও তাঁর যথেষ্ট ক্ষমতা ছিল।

আমলা মহলের একাংশের বক্তব্য, শিবশংকরের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ স্বপ্না। তা নিয়ে সরকারের উপর চাপ বাড়াতে থাকেন বিরোধীরা। বিজেপি আবার অভিযোগ করে, স্বপ্নাকে ওই কনসাইনমেন্ট পাইয়ে দিয়েছেন শিবশংকর। একইসঙ্গে সচিবকে বলির পাঁঠা করে মুখ্যমন্ত্রী পার পাবেন না বলে দাবি করেন কংগ্রেস নেতা রমেশ চেন্নিথালা। তিনি জানিয়েছেন, ঘটনায় সিবিআই তদন্তের আর্জি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে চিঠিও পাঠিয়েছেন।

যদিও মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, পুরো ঘটনায় তাঁর অফিসের তরফে কোনও হস্তক্ষেপ করা হয়নি। অন্যান্য ঘটনায় ইতিমধ্যে নাম জড়ানো স্বপ্নার বিষয়ে জিজ্ঞাসা করা হলে বাম সরকারের মুখ্যমন্ত্রী সাফাই দেন, সেইসব বিষয়গুলি তাঁর নজরে আসেনি। তবে কী হয়েছে, তা খতিয়ে দেখবেন। একইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘শুল্ক দফতর তো কেন্দ্রীয় সরকারের অধীনে। তদন্ত করা হোক এবং সত্যিটা উদঘাটন করা হোক।’

বন্ধ করুন