বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > রাতারাতি বাড়ল সংক্রমণ, তিরুবনন্তপুরমে জারি হল ৭ দিনের ‘ট্রিপল লকডাউন’
ট্রিপল লকডাউন পর্বে রাজ্য সচিবালয়-সহ সমস্ত সরকারি দফতর আপাতত বন্ধ থাকবে তিরুবনন্তপুরমে।

রাতারাতি বাড়ল সংক্রমণ, তিরুবনন্তপুরমে জারি হল ৭ দিনের ‘ট্রিপল লকডাউন’

  • সোমবার থেকে রাজধানী তিরুবনন্তপুরমে এক সপ্তাহের জন্য তিন গুণ লকডাউন জারি করল কেরালা সরকার।

করোনা সংক্রমণের হার আচমকা বৃদ্ধি পাওয়ায় সোমবার থেকে রাজধানী তিরুবনন্তপুরমে এক সপ্তাহের জন্য তিন গুণ লকডাউন জারি করল কেরালা সরকার। সকাল ৬টা থেকে চালু হওয়া লকডাউনের এই পর্যায়ে বেশ কিছু গাড়ি এবং পথচারীকে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করার দায়ে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রবিবার রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী কে সুরেন্দ্রণ মন্তব্য করেন, সংক্রমণের সাম্প্রতিক নিরিখে তিরুবনন্তপুরম ‘সক্রিয় আগ্নেয়গিরির উপরে বসে রয়েছে’। শুধু তাই নয়, গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কাও তিনি উড়িয়ে দেননি। মন্ত্রীর এই মন্তব্যের সূত্র ধরেই লকডাউন বিধি আরও কড়া করার সিদ্ধান্ত নেয় রাজ্য প্রশাসন।

প্রশাসনের তরফে সুরেন্দ্রণ জানান, ‘আগামিকাল থেকে নগর পুরসভার আওতায় থাকা এলাকায় এক সপ্তাহের জন্য এই লকডাউন জারি করা হবে। নাগরিকরা বাড়ি ছেড়ে বেরোবেন না। ভাইরাস সংক্রমণ রোধ করতে আমাদের কড়া ব্যবস্থা নিতে হবে। ট্রিপল লকডাউনের সময় আরও কিছু নিষেধাজ্ঞা জারি হচ্ছে। শুধুমাত্র অত্যাবশ্যক পরিষেবা চালু থাকবে।’

সেি সঙ্গে মন্ত্রী জানিয়েছেন, ‘কোনও রকম গণপরিবহণ চলবে না। শুধুমাত্র ওষুধ এবং অত্যাবশকীয় পণ্যের দোকান এবং হাসপাতাল খোলা থাকবে। বৈধ প্রেসক্রিপশন নিয়ে ওষুধের দোকানে যেতে হবে।’

তিনি জানিয়েছেন, এই পর্যায়ের লকডাউনে বন্ধ থাকবে জেলার সমস্ত আদালত। কন্টেনমেন্ট এলাকায় খাবার সরবরাহকারীদের স্বাস্থ্য নিয়মিত পরীক্ষা করা হবে। সেই সঙ্গে অ্যান্টিজেন টেস্ট-এর পরিমাণ বাড়ানো হবে বলেও জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। এ ছাড়া নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানায় প্রশাসন।

মন্ত্রী জানিয়েছেন, রাজ্য সচিবালয়-সহ সমস্ত সরকারি দফতর আপাতত বন্ধ থাকবে। লকডাউনের জেরে সমস্ত পরীক্ষা বাতিল ঘোষণা করেছে কেরালা বিশ্ববিদ্যালয়। 

এখনও পর্যন্ত কেরালায় করোনা সংক্রমণের কবলে পড়েছেন মোট ৫,৪২৭ জন। তাঁদের মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৭ জন রোগীর। 

 

বন্ধ করুন