বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > অবিবাহিত 'মা' এবং ধর্ষণের শিকার মহিলাদের সন্তানরা কী অধিকার পাবেন? বড় রায় কেরল হাইকোর্টের
বড় রায় কেরল হাইকোর্টের. (ANI) (HT_PRINT)

অবিবাহিত 'মা' এবং ধর্ষণের শিকার মহিলাদের সন্তানরা কী অধিকার পাবেন? বড় রায় কেরল হাইকোর্টের

আদালত তার পর্যবেক্ষে জানিয়েছে, যদি অবিবাহিত মায়েদের সন্তান ও ধর্ষণের শিকার হওয়া মেয়েদের সন্তানদের মৌলিক অধিকার রক্ষা করা না হয়,তাহলে তাঁরা যে মানসিক কষ্টের মুখে পড়বেন তা অকল্পনীয়।

অবিবাহিত কিম্বা ধর্ষণের শিকার মহিলাদের সন্তানরা নিজের জন্ম ও পরিচয় জনিত শংসাপত্রে কেবলই মায়ের নাম রাখতে পারবেন। এমন অধিকার দিল কেরল হাইকোর্ট। কেরল হাইকোর্টের তরফে জানানো হয়েছে, যে মহিলারা অবিবাহিতা হিসাবে সন্তানের জন্ম দিয়েছেন, তাঁদের সন্তানদের ক্ষেত্রে এই মর্যাদা ও সম্মান পাওয়ার অধিকার রয়েছে।

কেরল হাইকোর্টের বিচারপতি পিভি কুহ্নিকৃষ্ণণ জানিয়েছেন যে অবিবাহিত মা ও ধর্ষিতাদের সন্তানদের ক্ষেত্রে এই তথ্য গোপন রাখার অধিকারও রয়েছে। হাইকোর্ট বলছেন, বিয়ের বাইরে থেকে মা হওয়া মহিলাদের সন্তানরাও এই দেশেরই নাগরিক। ফলে সংবিধানে যে অধিকার রয়েছে তা সেই সন্তানের কাছ থেকে কেউ কেড়ে নিতে পারবে না। সংবিধান রক্ষা করবে তাঁর মৌলিক অধিকার। এই কথাই সাফভাবে জানিয়েছেন বিচারপতি পিভি কুহ্নিকৃষ্ণণ। উল্লেখ্য, এক মামলার সূত্রে এই রায় এসেছে কেরল হাইকোর্টের তরফে। সেই পিটিশনকারীর মাও অবিবাহিত অবস্থাতে তাঁর জন্ম দিয়েছিলেন। সেই ব্যক্তির পরিচয়পত্রে বাবার নাম নিয়ে জটিলতার জেরেই এই মামলা। রাজ্যসভা থেকে সাসপেন্ড ১৯ জন সাংসদ! তালিকায় বহু তৃণমূল নেতা, বিশৃঙ্খলার অভিযোগ

উল্লেখ্য, এই ব্যক্তির জন্ম সংক্রান্ত নথিতে তিনটি জায়গায় বাবার নাম তিনরকম দেওয়া রয়েছে। সেই প্রেক্ষাপটে 'রেজিস্টার অফ বার্থস অ্যান্ড ডেথস' যেন ওই ব্যক্তির পরিচয়পত্র থেকে বাবার নাম মুছে দেয়। তাঁর মাকে যেন সিঙ্গল পেরেন্ট হিসাবে দেখানো হয়। আর এই গোটা প্রক্রিয়া যেন খুব জলদি সম্পন্ন হয়, তার ওপর জোর দিতে বলা হয়েছে। আদালত তার পর্যবেক্ষে জানিয়েছে, যদি অবিবাহিত মায়েদের সন্তান ও ধর্ষণের শিকার হওয়া মেয়েদের সন্তানদের মৌলিক অধিকার রক্ষা করা না হয়,তাহলে তাঁরা যে মানসিক কষ্টের মুখে পড়বেন তা অকল্পনীয়।

বন্ধ করুন