বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > বাম নেতার বিয়ে নিয়ে পার্টির হেভিওেটের 'লাভ জেহাদ' মন্তব্যে বিতর্কের পর এবার আইনি সমনের মুখে দম্পতি

বাম নেতার বিয়ে নিয়ে পার্টির হেভিওেটের 'লাভ জেহাদ' মন্তব্যে বিতর্কের পর এবার আইনি সমনের মুখে দম্পতি

এক বাম নেতার বিয়ে নিয়ে অন্য বাম নেতার কটাক্ষ লাভ জেহাদ প্রসঙ্গ তুলে।

জানা যায়, শেজিনের সঙ্গে জ্যোৎস্নার বিয়ের দিনের ২ সপ্তাহ আগে তাঁরা পালিয়ে যান। তারপরই আসে তাঁদের বিয়ের খবর। 'মুখ ফস্কে বলে ফেলেছেন', ঠিক এই ভাবেই সিপিআইএম নেতা জর্জ এম থমাসের মন্তব্যকে নিয়ে সাফাই দেয় সিপিআইএম। তারা তাদের বক্তব্যে জানায়, ' উনি ভুল বুঝেছেন আর নিজেকে শুধরে নিয়েছেন।' একধাপ এগিয়ে পার্টি বলে, 'আমরা চিরকালই ভিন ধর্মের বিয়েতে উৎসাহ দিয়ে থাকি, আর আমরা দম্পতির সঙ্গে রয়েছি।'

ঘটনার সূত্রপাত গত শনিবার। শেজিন নামে কেরলের এক ডিওযাএফআই নেতা ও জ্যোৎস্না জোসেফ নামের এক নার্স আচমকা নিখোঁজ হয়ে যান। বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। বিষয়টি নিয়ে তোলপাড় হতেই কেরলের প্রাক্তন বাম বিধায়ক তথা সিপিআইএম নেতা জর্জ এম থমাস এক বিতর্কিত মন্তব্য করেন এই বিয়ে নিয়ে। তাঁর মন্তব্যে লাভ জেহাদের প্রসঙ্গ উঠে আসে, উঠে আসে হুমকি বার্তা। তিনি ওই যুব ডিওয়াইএফআই নেতাকে ত্যাজ্য করারও হুমকি দেন পার্টি থেকে। এরপরই বাম নীতি নিয়ে প্রশ্ন উঠতেই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামে দল।

এদিকে, এই বিতর্কের রেশ শেষ হতে না হতেই নয়া ঘটনার সূত্রপাত হয়েছে এই ইস্যুতে। জ্যোৎস্না জোসেফের বাবা ইতিমধ্যেই কেরল হাইকোর্টে হেবিয়াস কর্পাসের পিটিশন দায়ের করেন। সেই সূত্র ধরে হাইকোর্ট জ্যোৎস্নাকে সমন করেছে। ফলে দম্পতির সামনে এই ইস্যুতে এই মুহূর্তে বড় চ্যালেঞ্জ আইনি জটিলতাকে পার করা। আগামিকালের মধ্যেই জ্যোৎস্নাকে কেরল ডিভিশন বেঞ্চের সামনে উপস্থিত হতে বলা হয়েছে। উল্লেখ্য, হেবিয়াস কর্পাস কেসে নির্দিষ্ট ব্যক্তিকে আদালতে উপস্থিত হওয়ার জন্য বলা হয়। কয়েকদিন আগেই সিপিএমের হেভিওয়েট নেতা জর্জ এম থমাসের বিতর্কিত মন্তব্যের পর থেকেই এই দম্পতির বিয়ে ঘিরে ব্যাপক বিতর্ক শুরু হয়। খোদ বামশাসিত রাজ্যে বাম নেতার ভিন ধর্মে বিয়ে নিয়ে অপর বাম নেতার ‘লাভ জেহাদ’ প্রসঙ্গ তুলে কটাক্ষ নিয়ে বিপুল সমালোচনা শুরু হয়।

'মুখ ফস্কে বলে ফেলেছেন', ঠিক এই ভাবেই সিপিআইএম নেতা জর্জ এম থমাসের মন্তব্যকে নিয়ে সাফাই দেয় সিপিআইএম। তারা তাদের বক্তব্যে জানায়, ' উনি ভুল বুঝেছেন আর নিজেকে শুধরে নিয়েছেন।' একধাপ এগিয়ে পার্টি বলে, 'আমরা চিরকালই ভিন ধর্মের বিয়েতে উৎসাহ দিয়ে থাকি, আর আমরা দম্পতির সঙ্গে রয়েছি।' উল্লেখ্য, কোঝিকোডের কোদেনচেরি এলাকার ডিওয়াইএফআই নেতা শেজিন এম ইসলাম ধর্মাবলম্বী। তাঁর সঙ্গে খ্রিস্টান ধর্মের জ্যোস্তনা জেসেফের বিয়ে নিয়ে এলাকা চার্চগুলি ব্যাপক ক্ষোভে ফেটে পড়ে। এদিকে, জ্যোৎস্নার সঙ্গে শেজিন নিখোঁজ হওয়ার পরই তাঁদের নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। পরে তাঁরা বিয়ে করে মুখোমুখি হন ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সামনে। সেখানে জানান তাঁদের প্রেম 'লাভ জেহাদ নয়, সত্যি কারের লাভ'। শেজিন এও জানিয়েছেন যে, তিনি তাঁর প্রেমের সম্পর্কের কথা পার্টিকে জানাতে ভয় পাচ্ছিলেন। জানা যায়, শেজিনের সঙ্গে জ্যোৎস্নার বিয়ের দিনের ২ সপ্তাহ আগে তাঁরা পালিয়ে যান। তারপরই আসে তাঁদের বিয়ের খবর। আর এই বিয়ে নিয়ে কেরলের বর্ষীয়ান নেতা তথা প্রাক্তন সিপিএম বিধায়কের মন্তব্যে তুঙ্গে বিতর্ক। আরও পড়ুন- 'দেশকে বিভাজিত করতেই হিন্দুদের উপর হামলা', হিংসায় ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব নড্ডার

এদিকে গোটা ঘটনায় প্রাক্তন সিপিএম নেতা জর্জ এম থমাস বলেন, ' এটা খুবই দুঃখের যে এসব এমন সময় ঘটছে যখন পার্টি খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের কাছাকাছি আসছে। এটা শুধু লাভ জেহাদই নয়, অমন বিয়ে বহু প্রশ্ন তোলে। আমরা এর জবাবদিহি চাইব। আর যথাযথ ব্যবস্থা নেব (ডিওয়াইএফআই নেতার বিরুদ্ধে)।' প্রসঙ্গত, লাভ জেহাদ ইস্যুতে কেরলে আরএসএস বহু ক্ষেত্রে সুর চড়িয়েছে। তবে বামশাসিত এই রাজ্যে তার কঠোর বিরোধিতা দেখা গিয়েছে খোদ বাম নেতৃত্বের তরফেই। খোদ কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়নের মেয়ের সঙঅগে মুসলিম ধর্মের যুবকের বিয়ে হওয়ার মতো ঘটনাও দেখা গিয়েছে। সেই জায়গা থেকে জর্জ থমাসের বক্তব্যে পার্টিলাইন নিয়ে উঠছে প্রশ্ন।

বন্ধ করুন