বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > সমলিঙ্গের সঙ্গিনীকে জোর করে দূরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে সরব মহিলা! কাঠগড়ায় প্রেমিকার পরিবার
 সমলিঙ্গের সঙ্গিনীকে তাঁর থেকে জোর করে দূরে করার অভিযোগ ২৩ বছরের তরুণীর।

সমলিঙ্গের সঙ্গিনীকে জোর করে দূরে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে সরব মহিলা! কাঠগড়ায় প্রেমিকার পরিবার

  • একসঙ্গে থাকছিলেন কেরলের কোচিতে তাঁরা। তবে মহিলা তাঁর ফেসবুক পোস্টে অভিযোগ করেন, এই ঘটনায় তাঁর প্রেমিকার পরিবার বাধ সাধে। ফেসবুক পোস্টে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে, তাঁর সঙ্গীকে তাঁর বাবা মা কেরলের কোঝিকোডে কোনও একটি বাড়িতে বন্দি করে রেখে দিয়েছেন।

অভিযোগ, তাঁর প্রেমিকার বাবা,মা জোর করে তাঁর সমলিঙ্গের সঙ্গিনীকে কেড়ে নিয়ে গিয়েছেন তাঁর কাছ থেকে দূরে। আর সেই অভিযোগেই, কেরলেই ২৩ বছরের এক মহিলা প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়। এখানেই তিনি থেমে নেই, মহিলার অভিযোগ তাঁর উপর অত্যাচারও করা হয়েছে।

এক ফেসবুক পোস্টে ওই মহিলা অভিযোগ করেন সৌদি আরবে থাকাকালীন তিনি তাঁর সমলিঙ্গের সঙ্গিনীর সঙ্গে সম্পর্কে ছিলেন। পরবর্তীকালে তাঁরা পরিবারের চাপে পড়ে বিচ্ছিন্ন হতে বাধ্য হন। ততদিন দুজনের যোগাযোগও ছিল না। এরপর নিজেদের পড়াশোনা শেষ করে তাঁরা প্রতিষ্ঠিত হন। অভিযোগকারী মহিলা নিজে চাকরি পান। বর্তমানে তিনি একটি এমএনসিতে কর্মরতা। নিজের পায়ে দাঁড়িয়ে এরপর ফের সেই সঙ্গীর সঙ্গে সম্পর্কে লিপ্ত হন তিনি বলে জানান মহিলা। দুই মহিলা সঙ্গীনি এরপর কোচিতে তাঁদের সুখের ঘর খুঁজে পান। একসঙ্গে থাকছিলেন সেখানে তাঁরা। তবে মহিলা তাঁর ফেসবুক পোস্টে অভিযোগ করেন, এই ঘটনায় তাঁর প্রেমিকার পরিবার বাধ সাধে। ফেসবুক পোস্টে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন যে, তাঁর সঙ্গীকে তাঁর বাবা মা কেরলের কোঝিকোডে কোনও একটি বাড়িতে বন্দি করে রেখে দিয়েছেন। অভিযোগ, তাঁর মহিলা সঙ্গীর সঙ্গে তিনি যোগাযোগ করতে পারছেন না। ২৩ বছরের ওই মহিলার আশঙ্কা তাঁর লেসবিয়ান সঙ্গীর কোনও বড় বিপদ ঘটে যেতে পারে বলে। জামাইষষ্ঠী কবে পড়ছে? জামাই আদরের বিশেষ ঐতিহ্যবাহী রীতি, নিয়ম একনজরে

গোটা বিষয়টি নিয়ে ওই মহিলা কেরলের থামারাসেরি পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ জানাতে গেলেও তাঁদের অভিযোগ পুলিশ নেয়নি। সেই সময় পুলিশ জানিয়েছে, ‘তিনি (তাঁর প্রেমিকা) নিজের বাবা মায়ের সঙ্গে রয়েছেন, এতে কিছু করা যাবে না। ’ এমনই অভিযোগের সুর সোশ্যাল মিডিয়ায় তুলে ধরেছেন মহিলা। এই ঘটনার পর ওই অভিযোগকারিনী মহিলাকে একটি নিরাপদ আশ্রয় স্থানে সরে যেতে সাহায্য করছে এক সমাজসেবা সংগঠন, যারা সমলিঙ্গের সমানাধিকারের দাবি নিয়েই কাজ কর থাকে। 'বনজা কালেক্টিভ' নামের ওই সংগঠন আপাতত এই সাহায্য করছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

বন্ধ করুন