বাংলা নিউজ > ঘরে বাইরে > ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব এবার ভারতের রেল কারখানায়, উৎপাদনে বড় আঘাত
রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব রেলের যন্ত্রাংশ তৈরির কারখানায়।(ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্যে ভারতীয় রেল)

ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব এবার ভারতের রেল কারখানায়, উৎপাদনে বড় আঘাত

  • রেলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে সাপ্লাই চেনটা নষ্ট হয়ে গিয়েছে। এর জেরে সমস্যা আরও বেড়েছে। ইউক্রেনে যে বরাত দেওয়া হয়েছিল তা সেখানেই আটকে ছিল এতদিন। তবে বর্তমানে সেই পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে।

এবার রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের প্রভাব ভারতে রেলের যন্ত্রাংশ তৈরির কারখানায়। রেল সূত্রে খবর, এপ্রিল থেকে জুলাই মাসের মধ্যে চলতি বছরে রেলের ইউনিটে উৎপাদন আগের তুলনায় কিছুটা কমেছে। ২৯জুলাই এনিয়ে রিভিউ মিটিং হয়েছিল। সেখানেই দেখা যায় কোচ, চাকা, লোকো উৎপাদনের ক্ষেত্রে কিছুটা ঘাটতি থেকে গিয়েছে।

রেলওয়ে বোর্ডের চেয়ারম্যান তথা সিইও ভিকে ত্রিপাঠি এই মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন। আধিকারিকদের মতে, ইউক্রেন সংকটের জেরে সাপ্লাই শৃঙ্খলটা নষ্ট হয়ে গিয়েছে। এর জেরেও সমস্যা হচ্ছে। ট্র্যাকশন মোটর, লোকোমেটিভ চাকা আর আগের মতো আসছে না। এই সরবরাহ ঠিকঠাক না হওয়াতেই সমস্যা তৈরি হচ্ছে ক্রমশ। এদিকে ২০২২ সালের অগস্ট মাসের পরিস্থিতি কিছুটা উন্নত হবে বলে মনে করা হয়েছিল। কিন্তু প্রত্যাশার তুলনায় এখনও মালপত্র কম আসছে।

এদিকে পরিসংখ্যান অনুসারে দেখা যাচ্ছে ICF যে LHB কোচ তৈরি করে তা টার্গেটের তুলনায় প্রায় ২০.৪ শতাংশ কম উৎপাদন হচ্ছে। কোচ তৈরির ক্ষেত্রে ১০.২ শতাংশ কম উৎপাদন হচ্ছে। গত বছরের তুলনায় এবার উৎপাদন ৯.৪ শতাংশ কম হচ্ছে।

রেলের এক আধিকারিক জানিয়েছেন রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের জেরে সাপ্লাই চেনটা নষ্ট হয়ে গিয়েছে। এর জেরে সমস্যা আরও বেড়েছে। ইউক্রেনে যে বরাত দেওয়া হয়েছিল তা সেখানেই আটকে ছিল এতদিন। তবে বর্তমানে সেই পরিস্থিতির উন্নতি হয়েছে।

তবে মালপ্ত্রের যোগান না থাকলেও অর্ডার কিন্তু ক্রমশ বাড়ছে। দেখা যাচ্ছে চেন্নাইয়ের কোচ ফ্যাক্টরি, কাপুরথালা কোচ ফ্যাক্টরি ও রায়বেরিলির মডার্ন কোচ ফ্য়াক্টরিতে ৭৩০টি টার্গেটের মধ্যে মাত্র ৫৩টি তৈরি করা সম্ভব হয়েছে। 

বন্ধ করুন