বাড়ি > ঘরে বাইরে > দুই কোরিয়ার সংযোগকারী অফিস উড়িয়ে দিলেন কিম জং উন
উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তে তৈরি হয়েছিল দুই প্রতিবেশী রাষ্ট্রের মধ্যে সংযোগকারী এই লিয়াঁজ অফিস।
উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়া সীমান্তে তৈরি হয়েছিল দুই প্রতিবেশী রাষ্ট্রের মধ্যে সংযোগকারী এই লিয়াঁজ অফিস।

দুই কোরিয়ার সংযোগকারী অফিস উড়িয়ে দিলেন কিম জং উন

  • স্থানীয় সময় দুপুর ২.৪৯ মিনিটে কায়েসং লিয়াঁজ অফিস উড়িয়ে দিল উত্তর কোরিয়া।

গত কয়েক দিন ধরে হুমকি দেওয়ার পরে মঙ্গলবার সীমান্ত সংলগ্ন অঞ্চলে নিজের ভূখণ্ডে থাকা দুই কোরিয়ার সংযোগকারী যোগাযোগ দফতর উড়িয়ে দিল কিম জং উনের উত্তর কোরিয়া। 

এ দিন দক্ষিণ কোরিয়ার সংযোগকারী মন্ত্রক (Unification ministry) সংবাদমাধ্যমকে এক লাইনের বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘দুপুর ২.৪৯ মিনিটে কায়েসং লিয়াঁজ অফিস উড়িয়ে দিয়েছে উত্তর কোরিয়া।’ 

এই ঘোষণার কয়েক মিনিট আগেই তীব্র বিস্ফোরণের শব্দ শোনা গিয়েছে এবং লিয়াঁজ অফিস ভবনের দিক থেকে আকাশে ঘন ধোঁয়ার কুণ্ডলী দেখা গিয়েছে। সূত্র উল্লেখ না করে এই তথ্য জানিয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ার ইয়নহ্যাপ সংবাদসংস্থা।

মাত্র ৪৮ ঘণ্টা আগেই উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের ক্ষমতাশালী বোন কিম ইয়ো জং হুমকি দিয়েছিলেন, ‘শিগগিরই উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার মধ্যে সংযোগকারী অপদার্থ যৌথ লিয়াঁজ অফিস সম্পূর্ণ নিশ্চিহ্ন হতে দেখা যাবে।’

চলতি মাসের গোড়া থেকেই প্রতিবেশী রাষ্ট্রের কিম-বিরোধীদের সীমান্ত পার করে লিফলেট বিলিকে কেন্দ্র করে দক্ষিণ কোরিয়া প্রশাসনকে বার বার সচেতন করে পিয়ংইয়ং। গত সপ্তাহে দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে সমস্ত সরকারি বন্ধন ছিন্ন করার ঘোষণা করে কিম জং উন প্রশাসন।  

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের দাবি, আমেরিকার সঙ্গে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ চুক্তি মাঝপথে থমকে যাওয়ার জন্য দক্ষিণ কোরিয়ার নিষ্ক্রিয়তাকেই দুষছে পিয়ংইয়ং। এই কারণেই পুরনো শত্রুতা ঝালিয়ে নিতে নতুন কোনও মতলব ভাঁজছেন কিম। এর আগেই উত্তর কোরিয়ার সেনাবাহিনী জানিয়ে দিয়েছে, প্রতিবেশী দেশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে তারা প্রস্তুত।

 

 

 

বন্ধ করুন