বাড়ি > ঘরে বাইরে > Kozhikode Crash: দিন ১৫ পরেই হতেন বাবা, কোঝিকোড় দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন বিমানের কো-পাইলট
এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের কো-পাইলট অখিলেশ কুমার (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের কো-পাইলট অখিলেশ কুমার (ছবি সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

Kozhikode Crash: দিন ১৫ পরেই হতেন বাবা, কোঝিকোড় দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন বিমানের কো-পাইলট

  • তাঁর স্ত্রী মেঘাকে এখনও মৃত্যুর খবর জানানো হয়নি।

হেমেন্দ্র চতুর্বেদী

দিন ১৫ পরেই বাবা হতেন তিনি। কিন্তু এক বিভীষিকাময় সন্ধ্যায় সেই স্বপ্নপূরণ হল না। শুক্রবার সন্ধ্যায় কোঝিকোড় বিমানবন্দরের বিমান দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের কো-পাইলট অখিলেশ শর্মার (৩২)। 

শুক্রবার রাতের দিকেই অখিলেশের মথুরার গোবিন্দ নগরের বাড়িতে সেই খবর পৌঁছানোর পরই ভেঙে পড়েছেন আত্মীয়-পরিজনরা। তবে এখনও অখিলেশের স্ত্রী মেঘাকে (২৯) কো-পাইলটের মৃত্যুর বিষয়ে জানানো হয়নি। অখিলেশের ভাই লোকেশ বলেন, ‘বিমান দুর্ঘটনার পর প্রাথমিকভাবে জানতে পারি যে দাদার অবস্থা আশঙ্কাজনক এবং তাঁকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে। পরে রাতের দিকে দাদার মৃত্যুর খবর জানানো হয়। বৌদিকে এখনও দাদার বিষয়ে বলিনি। কারণ বৌদি অন্ত্বঃসত্ত্বা এবং দিন ১৫-এর মধ্যেই মা হতে চলেছেন। তবে বিমান দুর্ঘটনার বিষয়ে বৌদি জানেন।’

মথুরার অমরনাথ কলেজ থেকে স্কুলের পড়াশোনা শেষ করে মহারাষ্ট্রে সিএই অক্সফোর্ড অ্যাভিয়েশন অ্যাকাডেমিতে ভরতি হয়েছিলেন। তারপর ২০১৭ সালে এয়ার ইন্ডিয়ার সঙ্গে যোগ দেন। পরের বছরই বিয়ে করেন অখিলেশ। লকডাউনের সময় বাড়ি ছিলেন। পরে অবশ্য কাজে ফেরেন। ‘বন্দে ভারত মিশন’-এর আওতায় গত ৮ মে কোঝিকোড় বিমানবন্দরে এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের উড়ান নেমেছিল, সেটির ‘ফার্স্ট অফিসার’ ছিলেন ক্যাপ্টেন অখিলেশ কুমার। কোঝিকোড়ে তাঁদের হাততালি দিয়ে স্বাগত জানানো হয়েছিল। আর তার তিন মাসের মাথায় সেই বিমানবন্দরেই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন তরুণ কো-পাইলট।

বন্ধ করুন